ব্রেকিং নিউজঃ ব্রাজিলে নেইমারের থেকে মেসির ভক্ত বেশি!

বাংলাদেশের ব্রাজিল ভক্তরা সবসময় চান, আর্জেন্টিনা যেন হেরে যায়। আবার আর্জেন্টিনার ভক্তরাও চান ব্রাজিল হেরে যাক। কিন্তু খোদ ব্রাজিল-আর্জেন্টিনাতে এই হিসাব মিলবে না। নামকরা সেলেসাও সাংবাদিক ম্যারিকা রুসো এক জরিপ চালান সাও পাওলো এবং মারাকানার আশেপাশের কয়েক হাজার মানুষের উপর।

জরিপে তিনি জানান, ব্রাজিলের হয়ে সবশেষ জনপ্রিয় ফুটবলার হলেন রোনালদিনহো। তারপরে সবথেকে জনপ্রিয় লিওনেল মেসি, এমনকি নেইমার থেকেও। এক ভক্তের দেওয়া বক্তব্য ছিল এমন – “আমরা নেইমারকে ভালবাসি, তবে মেসিই সেরা। মেসির হাত ধরে আর্জেন্টিনা কোন শিরোপা জিতলে ব্রাজিলের মানুষ খৃুশি হবে। অবশ্যই আমরা ৬ বার বিশ্বকাপ জিততে চাই তবে মেসি জিতলেও আমরা খুশি। আশা করি সামনের কোপাতে মেসি তা পারবে।“

এরআগেও ২০১৪ বিশ্বকাপের সময় আর্জেন্টিনা বড় সমর্থন পেয়েছিল মেসির কল্যানে। মারাকানার ফাইনালে তাই স্টেডিয়ামের বেশিরভাগ দর্শক ছিল আর্জেন্টিনার পক্ষে।

ব্রাজিল নাকি আর্জেন্টিনা এমন প্রশ্নে যেন দুইভাগ বাংলাদেশের সমর্থকরা। বিশ্বকাপ কিংবা কোপা আমেরিকার সময়ে চায়ের কাপে চলে বিতর্ক। ৫ বারের বিশ্বকাপ জেতা ব্রাজিল ভক্তরা যেমন গর্ব করেন তাদের বিশ্বকাপ ঐতিহ্য নিয়ে তেমনি আর্জেন্টাইন ভক্তরা গর্ব করেন ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসিকে নিয়ে।

যুক্তিতে থাকা বিতর্ক কখনও কখনও সীমা পার করে রুপ নেয় গালাগালি, মারামারিতে। ফুটবল নিয়ে বাঙালির আবেগের পশলার খবর নতুন না। ধারণা করা হয় ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপের সময় প্রথম টিভি সেট আসে বাংলাদেশে। যে কারণে ম্যারাডোনার সুবাদে বেশিরভাগ বাংলাদেশের মানুষ ভক্ত মেসিদের।

২০০২ বিশ্বকাপ জেতার পর ব্রাজিল সমর্থকদের সংখ্যাও বেড়ে যায় বহুগুনে। দুই দেশের ভক্তরা অপরকে ট্রল করা নিয়ে সবসময় ব্যস্ত থাকেন এই সময়ে।
আগামীকাল বাংলাদেশ সময় সকাল সাতটার সময় মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা ও ইকুয়েডর।

You May Also Like

About the Author: