ব্রাজিলের কাছে পরাজয়ের পর আর কোনো ম্যাচ হারেনি আর্জেন্টিনা

ব্রাজিলে চলছে কোপা আমেরিকার আসর। গ্রুপ পর্বে স্বাগতিক ব্রাজিল দুর্দান্ত খেললেও শেষ ম্যাচে ইকুয়েডরের সাথে ড্র করেছে। অন্যদিকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের মতো দুর্দান্ত না খেললেও এখনো গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষেই আছে মেসিদের আর্জেন্টিনা।

কোপায় তিন ম্যাচে ২ জয় ও এক ড্র নিয়ে ৭ পয়েন্ট জমা করেছে আর্জেন্টিনা। যেখানে ৩ জয় ও এক ড্র নিয়ে ব্রাজিলের পয়েন্ট ৮। গোল সংখ্যায়ও অনেক সেলেকাওদের তুলনায় পিছিয়ে মেসিরা।
বিষয়টি নিয়ে ব্রাজিলসমর্থকরা আর্জেন্টিনা সমর্থকদের নিয়ে হাস্যরসে মাততে পারেন। খোঁচা দিতে পারেন। হলুদ জার্সি পরে নীল-সাদাদের সামনে দম্ভও করতে পারেন।

তবে একটি বিষয়ে, দাপট দেখাতে পারেন আর্জেন্টিনা সমর্থকরাও। তা হলো- টানা ১৬ ম্যাচ হারেনি আর্জেন্টিনা।
২০১৯ সালে সর্বশেষ কোপা আমেরিকায় ব্রাজিলের কাছে হেরেছিল আর্জেন্টিনা। সেই থেকে এখনও পর্যন্ত আর কোনো ম্যাচে হারেনি আলবিসেলেস্তেরা।

class="td-animation-stack-type0-1 tie-appear" src="https://i.imgur.com/GLeZpht.png" />

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় ভোর ৬টায় কোপা আমেরিকার ম্যাচে কুইয়াবার অ্যারেনা পানতানালেতে গ্রুপের শেষ ম্যাচে বলিভিয়ার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা।
অপরাজিত থাকার সংখ্যাকে ১৭ তে পরিণত করবেন আলিবাস্তেতিরা, এমনটিই আশা সমর্থকদের

সেটি আশাই স্বাভাবিক। পরিসংখ্যান আর্জেন্টিনার পক্ষে। উরুগুয়ের কাছে ২-০ গোলের ব্যবধানে হেরে মনোবল অনেকটাই চূর্ণবিচূর্ণ বলিভিয়ার। পয়েন্ট টেবিলে এখন তলানিতে তারা। কোনো জয় না পেয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়তে যাচ্ছে দলটি। অন্যদিকে সাত পয়েন্ট নিয়ে এখনও পর্যন্ত ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে আর্জেন্টিনা। এত গেল কোপা আমেরিকার খবর।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে দলটির ইতিহাস ভালো নয়। এখনও পর্যন্ত আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ৪০টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বলিভিয়া। এর মধ্যে ২৮ বারই জিতেছে আর্জেন্টিনা। হেরেছে সাতটিতে এবং ড্র করেছে ৫টি।
তা ছাড়া মঙ্গলবারের ম্যাচে বলিভিয়াকে ছাড় দেবে না আর্জেন্টিনা। ইকুয়েডরের বিপক্ষে ব্রাজিল ছাড় দিয়েছে। দলের সেরা খেলোয়াড় নেইমারকে বিশ্রামে দিয়েছেন কোচ তিতে।

কিন্তু সে পথ মাড়াবেন না লিওনেল স্কোলানি। আর্জেন্টাইন কোচ জানিয়ে দিলেন, ‘এই দলের মধ্যে কেবল একজন খেলোয়াড়ের জায়গার নিশ্চয়তা আছে। আর সবাই জানে সে কে। বাকিদের এটি অর্জন করে নিতে হবে।’

অর্থাৎ মেসি খেলছেন বলিভিয়ার বিপক্ষে। হার তো দূরের কথা, পয়েন্ট ভাগাভাগি করতেও রাজি নন তিনি।

Related Post