সাকিবের মাঠে লাথি দিয়ে স্টাম্প ভাঙার ভিডিও ব্যপক ভাইরাল

এবার নতুন বিতর্কে জড়ালেন সাকিব। কদিন আগে বায়ো বাবল ভাঙার অভিযোগ উঠে তার বিরুদ্ধে। তবে সেটি থেকে মুক্ত হয়ে আজ আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে বিতর্কে জড়ান এই অলরাউন্ডার।

ঘটনা আবাহনীর ইনিংসের পঞ্চম ওভারের শেষ বলে। মোহামেডানের বেঁধে দেয়া ১৪৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুভাগত হোমের বোলিং তোপে তিন ওভারের মধ্যেই তিন উইকেট হারিয়ে ফেলে আবাহনী।
পঞ্চম ওভারে বোলিংয়ে আসেন সাকিব। দ্বিতীয় বলে তাকে ছয় মারেন আবাহনীর অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, পরের বলেই চার। শেষ বলে অবশ্য মুশফিককে পরাস্ত করে তার প্যাড আঘাত হেনেছিল সাকিবের বল।

কিন্তু লেগ বিফোরের জন্য সাকিবের জোরালো আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার। আর তাতেই সাকিব লাথি মেরে ভেঙে ফেলেন বোলিং প্রান্তের স্টাম্প। আম্পায়ারের সঙ্গে তর্কও করেন বেশ কিছুক্ষণ। এরপর সতীর্থরা তাকে সরিয়ে নেন।

ষষ্ঠ ওভারের পঞ্চম বলের পর বৃষ্টি নামলে আম্পায়াররা সিদ্ধান্ত নেন খেলা বন্ধ করার। কিন্তু তা মানতে চাননি সাকিব। আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক করতে করতে ক্ষোভ দেখিয়ে বোলিং প্রান্তের তিনটি স্টাম্প তুলে মাটিতে ছুড়ে মারেন তিনি।
খেলা বন্ধ হওয়ার পর আবাহনীর ড্রেসিং রুমে আবাহনী কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনের সাথেও হালকা বাগ বিতন্ডায় জড়াতে দেখা যায় সাকিবকে। সাকিবের এমন কান্ডে আবাহনী ড্রেসিং রুমেও ছড়িয়ে পড়ে উত্তাপ, যা ডাগ আউটে দৃশ্যমান হয়।

class="tie-appear" src="https://i.imgur.com/Hjjwsnc.jpg" />

ঘরোয়া ক্রিকেটে আম্পায়ারের সঙ্গে সাকিবের তর্কের ঘটনা নতুন নয়। ২০১৫ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে রংপুরের হয়ে খেলার সময় আম্পায়ার তানভির আহমেদ একটি আবেদনে সাড়া না দিলে তার দিকে তেড়ে যান সাকিব, তর্ক করেন। ম্যাচশেষে ম্যাচ রেফারি সিদ্ধান্ত নেবেন, সাকিবের শাস্তি হবে কি না।

ভিডিওঃ

Related Post