১ বছর নিষেধাজ্ঞার পর আবার নতুন করে যে শাস্তি পেতে যাচ্ছে সাকিব

ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে বায়ো বাবল ভাঙলেই শাস্তি! এমন কঠোর ঘোষণাই দিয়েছে আয়োজকরা। কিন্তু বাস্তবে তেমনটি দেখা গেল না। বায়ো বাবল ভেঙেও পার পেয়ে গেলেন সাকিব আল হাসান ও তার ক্লাব মোহামেডান।

বুধবার প্রিমিয়ার লীগের আয়োজক ‘ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম)’ এর চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ জানান, সাকিব ও মোহামেডান ক্লাবকে কোনো শাস্তি দেয়া হয়নি। কেবল সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে যাতে আর এমন ঘটনা না ঘটে।

এক ভিডিও বার্তায় সিসিডিএম-এর চেয়ারম্যান বলেছেন, ‘গত ৮ই জুন বিসিবি এবং সিসিডিএম থেকে একটি হেয়ারিং হোল্ড করেছি।
সম্প্রতি দুভার্গ্যবশত সিসিডিএমের আন্ডারে যে ডিপিএলটা হচ্ছে সেখানে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের প্র্যাকটিসের সময় একটি বায়ো বাবল ভঙ্গ হয় যেটা আমরা মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পেরেছি।

কালকের এই মিটিং ও হেয়ারিংয়ে বিসিবির ডিরেক্টর এবং টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস ছিলেন, বিসিবির সিইও, মেম্বার সেক্রেটারি অব সিসিডিএম, ক্লাব কর্তৃপক্ষ থেকে মোহামেডান ক্লাবের ম্যানেজার ছিলেন এবং সাকিব আল হাসান ছিলেন। দুর্ভাগ্যবশত যে বায়ো বাবল ভঙ্গ হয় সে ব্যাপারে তারা সতর্ক। এবং তারা দুঃখ প্রকাশ করেছেন।’

‘বিসিবি এবং সিসিডিএমের পক্ষ থেকে টুর্নামেন্টটির ভবিষ্যত নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করতে চাই। যাতে টুর্নামেন্টটি সুন্দরভাবে হয় সেকারণে আমরা সকল ক্লাবের সঙ্গে যোগাযোগ করছি।

আমরা বায়ো বাবল রক্ষার জন্য নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছি। যাতে সামনে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয় সেজন্য মোহামেডান কর্তৃপক্ষ এবং প্লেয়ারদের একটা নোটিশ পাঠাবো। আমরা আশা করছি টুর্নামেন্টটি সফলভাবে চালিয়ে যেতে পারবো।’

গত শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা মাঠের ইনডোরে সাকিবের অনুশীলনে উপস্থিত ছিলেন বায়ো বাবলের বাইরে থাকা দুই নেট বোলার ও বিসিবি’র টিমবয় নাসির।

শুধু তাই নয়, সেখানে এক সাকিবভক্তকেও দেখা গেছে মুঠোফোনে ক্রিকেটারদের সঙ্গে সেলফি তুলতে। তাতেই শুরু হয় হইচই। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড জানিয়ে দেয় বায়ো বাবল যারাই ভেঙেছে তাদের ছাড় দেয়া হবে না।

সেই সঙ্গে মোহামেডান ক্লাবকেও সোমবার চিঠি দেয়া হয় কারণ দর্শানোর। মঙ্গলবার ক্লাবটি চিঠির উত্তর বিসিবি ও সিসিডিএমকে পাঠায়।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment