টি-২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের গ্রুপে কোন কোন দল আছে দেখেনিন

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য আইসিসি-র থেকে সময় দিয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তবে আইসিসির কাছ থেকে সময় নিলেও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তারা বুঝে গিয়েছেন ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করা এই মুহূর্তে এক প্রকার অসম্ভব।

তাই নিজেদের মধ্যে এক প্রকার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে বিসিসিআই। বিকল্প ভেন্যু হিসেবে দুবাই, আবুধাবি এবং ওমানের দিকে নজর দিচ্ছে বিসিসিআই। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এক কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থাকে বলেছেন,

“আইসিসি-র বোর্ড মিটিংয়ে ভারতের তরফে সময় চাওয়া হয়েছে ঠিকই, কিন্তু এটাও বলা হয়েছে যে প্রতিযোগিতা যেখানেই হোক না কেন, বিসিসিআই-কে আয়োজনের স্বত্ব রাখতে দিতে হবে।”
তাঁর দাবি, প্রাথমিক রাউন্ডের খেলাগুলির জন্যেই মাসকাটের (ওমান) নাম ভাবা হয়েছে। এর ফলে দুবাইয়ের মাঠগুলি প্রস্তুত হওয়ার সময় পাবে।

ওই কর্তা বলেছেন, “যদি আইপিএল ১০ অক্টোবর শেষ হয় এবং আমিরশাহিতে বিশ্বকাপ নভেম্বরে শুরু হয়, তাহলে এত বড় প্রতিযোগিতার জন্য পিচ প্রস্তুত করার যথেষ্ট সময় পাওয়া যাবে। প্রথম সপ্তাহের খেলা ওমানে হতে পারে।”

অনেকেরই ধারণা, ভারত যতই সময় নিক, অক্টোবর-নভেম্বরে দেশে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ করা ঝুঁকির হয়ে যাবে।

বোর্ডের কর্তা সাফ জানালেন, “এখন দিনে ১ লক্ষ ২০ হাজার আক্রান্ত ধরা পড়ছে। কিন্তু ২৮ জুনের বৈঠকে যদি আপনি ভারতে বিশ্বকাপ করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে কী করে বুঝবেন অক্টোবরে অবস্থা কেমন থাকবে? যদি তৃতীয় ঢেউ আসে তখন?”

তাঁর সংযোজন, “বিসিসিআই-এর প্রত্যেকে জানে আইপিএল আমিরশাহিতে নিয়ে যাওয়ার পিছনে বৃষ্টির মরসুমটা কোনও কারণই নয়। ২৫০০ কোটি টাকা আইপিএল-এর উপর নির্ভর করছে।

বিশ্বকাপের মতো ১৬ দলের প্রতিযোগিতায় যদি কেউ আক্রান্ত হয়, তাহলে আইপিএল-এর মতো দুম করে বন্ধ করা যাবে না। ছোট দলগুলির পক্ষে বিকল্প ক্রিকেটার আনাও অসম্ভব।”

এবার দেখে নেওয়া যাক টি-২০ বিশ্বকাপের দল গুলো গ্রুপঃ

বি গ্রুপে বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে নেদারল্যান্ডস, নামিবিয়া ও স্কটল্যান্ডের। এ গ্রুপে শ্রীলংকার প্রতিপক্ষ পাপুয়া নিউগিনি, আয়ারল্যান্ড ও ওমান।

বিশ্বকাপে থাকবে দুটি পর্যায়। প্রথম ধাপে আটটি দল দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে। এ ও বি গ্রুপ থেকে দুটি করে দল যাবে সুপার ১২ রাউন্ডে। সেখানেও আছে দুই গ্রুপ।

এ ও বি গ্রুপে র‍্যাংকিংয়ের সেরা আট দলকে ভাগ করে রাখা হয়েছে। বাংলাদেশ যদি প্রথম রাউন্ডের গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়, তাহলে তারা খেলবে গ্রুপ-২ এ, সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ভারত, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও আফগানিস্তান।
বি গ্রুপের রানার্সআপ হলে বাংলাদেশ যাবে সুপার ১২ এর গ্রুপ-১ এ। সেখানে আছে অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও নিউজিল্যান্ড।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment