ব্যাট হাতে আবারো জাত চিনালেন মুশফিক গড়লেন রান পাহাড়

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে বড় জয় পেয়েছে আবাহনী ক্লাব লিমিটেড। মুশফিকুর রহিম ও নাইম শেখের ব্যাটে চরে এদিন জয় পায় আবাহনী।

বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে প্রতি ইনিংসের দৈর্ঘ্য কমিয়ে আনা হয় মাত্র ১১ ওভারে। প্রথমে ব্যাট করতে নামা ব্রাদার্স ইনিউয়ন দলীয় ৩৮ রানে ওপেনার মিজানুর রহমানের উইকেট হারায়। ১৪ বলে ২০ রান করে মিজানুর সাজঘরে ফিরে গেলে ব্যাট কোন রান না করেই আরাফাত সানির শিকারে পরিণত হয়ে সাজঘরে ফিরেন মাইশুকুর রহমান। এরপরের বলে আবারও সানির শিকার হন রাহাতুল ফেরদৌস।

শেষের দিকে আলাউদ্দিন বাবু এবং জাহিদুজ্জামান খান মিলে ব্যাটিং তাণ্ডব চালান। যেখানে ১০ বল মোকাবেলায় ৩টি ছক্কা ও ১টি চারের সাহায্যে আলাউদ্দিন অপরাজিত থাকেন ২০ রানে ও জাহিদুজ্জামান ১০ বল মোকাবেলায় ২টি ছক্কা ও ২টি চারের সাহায্যে অপরাজিত থাকেন ২৫ রানে। নির্ধারিত ১১ ওভারে ব্রাদার্স ইউনিয়নের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেট হারিয়ে ১০১ রানে।

১০২ রানের বড় লক্ষ্যে খেলতে নেমে আবাহনীর দুই ওপেনার নাইম শেখ ও মুনিম সরকার শুরুটা দুর্দান্ত করেন। উদ্বোধনী জুটিতে এই দুই ব্যাটসম্যান স্কোরবোর্ডে ৩৮ রান যোগ করার পর ১২ বলে ৪টি চার ও ১টি ছক্কায় ২৫ রান করা মুনিম প্যাভিলিয়নে ফিরেন ব্যক্তিগত ২৫ রানে।

তবে এরপর বাকি সময়টা কেবল নাইম শেখ ও মুশফিকুর রহিমময়। ব্রাদার্স ইউনিয়নের বোলারদের তুলোধুনো করে এদিন রানের গতি বাড়াতে থাকেন মুশফিকুর রহিম ও নাইম।

শেষ পর্যন্ত ইনিংসের ৭ বল বাকি থাকতেই ৯উইকেটের বড় জয় পায় আবাহনী। ব্যাট হাতে ২৬ বল মোকাবেলায় ১টি চার ও ১টি ছয়ের সাহায্যে নাইম অপরাজিত ছিলেন ৩৬ রানে। অপরপ্রান্তে থাকা মুশফিকুর রহিম ২১ বল মোকাবেলায় ১৭৬ এর বেশি স্ট্রাইকরেটে করেন ৩৭ রান। মুশফিকুর রহিমের দুর্দান্ত এই ইনিংসে কোন ছয়ের মার না থাকলেও ছিল ৬টি চারের মার।তাই ডিপিএলের অন্য সব গুলো ম্যাচের তুলনায় এই ম্যাচকে রান পাহাড়ই বলা চলে

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment