ব্রেকিং নিউজঃ আশরাফুলদের ছক্কার ঝড়ে উড়িয়ে দিয়েছে তৌহিদ হৃদয়রা

শেখ জামাল ধানমন্ডিকে হারিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) জয়ের দেখা পেল শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব। অল্প পুঁজি গড়েও দারুণ বোলিং নৈপুণ্যতায় মোহাম্মদ আশরাফুলদের আটকে দিয়েছে তারা। লিগের তৃতীয় রাউন্ডে এসে ১০ রানের দারুণ জয় পেয়েছে তৌহিদ হৃদয়রা।

আজ শুক্রবার মিরপুর শের-ই বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টসে জিতে ব্যাট করতে এসে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রান তোলে শাইনপুকুর। মাঝারি লক্ষ্য তাড়ায় ১২৭ রানে গুটিয়ে যায় শেখ জামাল।

শাইনপুকুরের দেওয়া লক্ষ্য তাড়া করতে এসে প্রথম ওভারের শেষ বলে হাসান মুরাদের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন মোহাম্মদ আশরাফুল। দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে ফেরেন আরেক ওপেনার সৈকত আলী। তিনে এসে ২১ বলে ২৮ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেন নাসির হোসেন। দুই উইকেট হারানোর পর তার ইলিয়াস সানির সঙ্গে তার ৫৮ রানের জুটিতে কিছুটা ঘুরে দাঁড়ায় শেখ জামাল।

দশম ওভারের প্রথম বলে নতুন ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহানকে ফেরান তানভীর ইসলাম। একই ওভারের চতুর্থ বলে তানভীর হায়দারকেও ফেরান তিনি। ৩০ রান করে রান আউট হয়ে সানি ফিরে গেলে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি শেখ জামাল। নির্ধারিত ওভারের এক বল বাকি থাকতেই সবকয়টি উইকেট হারিয়ে ১২৭ রানে গুটিয়ে যায় শেখ জামাল।

class="tie-appear" src="https://i.imgur.com/Hjjwsnc.jpg" />

শেখ জামালের হয়ে সর্বোচ্চ ৩০ রান করেন ইলিয়াস সানি। শাইনপুকুরের হয়ে সর্বোচ্চ তিন উইকেট নেন তানভীর ইসলাম। এ ছাড়া দুটি উইকেট নেন হাসান মুরাদ।

এর আগে, টসে জিতে ব্যাট করতে এসে দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার সাব্বির হোসেন ও তানজিদ হাসান। দু’জনের গড়া ৫৪ রানের জুটি ভাঙেন জিয়াউর রহমান। ২৩ বলে ২০ করে কট এন্ড বোল্ড হন তিনি। খানিক পরই ফিরে যান এনামুল হক ফেরান ৩৪ রান করা তানজিদকে।

দলীয় ৬৪ রানে ফিরে যান মাইদুল ইসলাম অঙ্কন। তাকেও ফেরান জিয়াউর রহমান। অল্প সময়ের ব্যবধানে তিন উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়া দলকে টেনে তোলেন তৌহিদ হৃদয় ও রবিউল ইসলাম রবি। তাদের ৫৪ রানের জুটি ভাঙেন ইবাদত হোসেন। ৩০ বলে ২৮ রান করে বোল্ড হয়ে ফেরেন হৃদয়। অন্যপাশ আগলে রাখা রবিউলের অপরাজিত ৩৪ রানে ভর করে নির্ধারিত ওভারে পাঁচ উইকেটে ১৩৭ রান তোলে শাইনপুকুর।

Related Post