ব্যাটিংয়ের পর এবার বল হাতেও বিধ্বংসী মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাবের বিপক্ষে ২২ রানের জয় তুলে নিয়েছে মুশফিকুর রহিমের দল আবহনী লিমিটেড। ডিপিএলে আজ ১১ তম ম্যাচে ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাবের বিপক্ষের টসে হেরে ব্যাটিং করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে আবহনী লিমিটেড।

শেষের দিকে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের ৪০ রানের ব্যাটিং তান্ডবে নির্ধারিত ১৯ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রান সংগ্রহ করে আবহনী লিমিটেড। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ১৯ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১১৩ রান সংগ্রহ করে ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাব।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আজ টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই চাপে পড়ে তারকাখচিত দল আবাহনী লিমিটেড। দলীয় ২৫ রানের মাথায় প্যাভিলিয়নে ফেরেন জাতীয় দলের ওপেনার ব্যাটসম্যান নাঈম শেখ। ২১ বলে ৩টি চার এবং একটি ছক্কার সাহায্যে ২৩ রান করে আব্দুর রশিদের বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন নাঈম।

জাতীয় দলের পর ঘরোয়া ক্রিকেট লীগেও জ্বলে উঠছে না নাজমুল হোসেন শান্ত। ১০ বলে দুটি চারের সাহায্যে ১১ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন জাতীয় দলের আরেক টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। এরপর আরেক ওপেনার মমিন সরকার (১৬) এবং অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের (৬) উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে আবহনী লিমিটেড।

দুটি উইকেট তুলে নেন রকিবুল হাসান। দলীয় ৭২ রানের মাথায় ৮ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। দলীয় ৭২ রানের মধ্যে ৬ উইকেট হারিয়ে বড় ধরনের চাপে পড়ে আবহনী লিমিটেড। তবে এই দিন ব্যাটিং তান্ডব চালিয়েছে জাতীয় দলের অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। শেষের দিকে ১৯ বলে দুইটি চার এবং তিনটি ছক্কার হাঁকিয়ে ৪০ রান করেন সাইফুদ্দিন। ২৭ রান করে অপরাজিত থাকেন আফিফ হোসেন।

Advertisements
Advertisements

১৩৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালই করে ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাবের দুই ওপেনার আনিসুল ইসলাম ইমন এবং রকিন আহমেদ। ওপেনিং জুটিতে দুইজনে গড়ে তোলেন ৫৩ রানের পার্টনারশিপ। তবে দুইজনের ইনিংসটা ছিল অনেকটাই ধীর গতির।

২৭ বলে একটি চার এবং একটি ছক্কার সাহায্যে ২০ রান করে শহিদুল ইসলামের বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন আনিসুল ইসলাম ইমন। অন্য প্রান্ত থেকে হাফ সেঞ্চুরির পথে এগোচ্ছিলেন রকিন আহমেদ। তবে দলীয় ৮৩ রানের মাথায় জোড়া উইকেট হারায় ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাব।

৪৪ বলে তিনটি চার এবং একটি ছক্কার সাহায্যে ৪৩ রানে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন রকিন আহমেদ। এবং পরের ওভারেই মাহমুদুল হাসান জয়ের (১৫) উইকেটই তুলে নেন আরাফাত সানি। নির্ধারিত ১৯ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১১৩ রান সংগ্রহ করে ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাব। মাহমুদুল খান ১০ এবং রায়ান রহমান ১৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।

বল হাতে এই দিন দুর্দান্ত বোলিং করেছেন অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন এবং আরাফাত সানি। ৪ ওভারে ১৫ রানের বিনিময়ে একটি উইকেট তুলে নেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। এছাড়াও ৪ ওভারের ১৩ রানের বিনিময়ে একটি উইকেট তুলে নেন আরাফাত সানি। দলের হয়ে বাকি উইকেটে তুলে নিয়েছেন শহিদুল ইসলাম।

Related Post