নতুন করে বাংলাদেশের একাদশ সাজিয়ে দিলেন আশরাফুল

বহু প্রতিক্ষার পর গতকাল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। রোববার (২৩ মে) শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মাঠে নামে দু’দল। যেখানে প্রথমে ব্যাট করা বাংলাদেশ নির্ধারিত ৫০ ভার শেষে ৬ উইকেট হারয়ে ২৫৭ রান করে।

জবাবে ব্যাটি করতে নেমে ৪৮.১ ওভারে ২২৪ করে অলআউট হয় শ্রীলঙ্কা। তিন সিনিয়র ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ফিফটির পর মেহেদী হাসান মিরাজের অসাধারণ বোলিংয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৩ রানে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।

ফলে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটি জিতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল টাইগাররা। প্রথম ম্যাচে তো জয় পাওয়া গেল। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ নিয়ে কি ভাবছে টাইগাররা। গত ম্যাচে জয় পেলেও বড় গর্ব করে দলে নেওয়া মিঠুন-লিটন দলের জন্য তেমন কিছুই করতে পারেননি।

উল্টো হতাশ করেছেন টিম ম্যানেজম্যান্টদেরকে ।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২য় ম্যাচে কেমন হতে পারে টাইগারদের টিম কম্বিনেশন? কতজন ব্যাটসম্যান, কতজন পেসার ও স্পিনার থাকবেন দলে? কাদের দিয়ে সাজানো হবে একাদশ? অধিনায়ক তামিম, হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো আর নির্বাচকরা মিলেই সাজাবেন দল। বেছে নেবেন সেরা ১১ জন

প্রিয় স্পোর্টসের পাঠকদের জন্য তার পছন্দের একাদশ সাজিয়ে দিয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। জাতীয় দলের এ সাবেক অধিনায়ক গরমের কথা চিন্তা করে তিনজন পুরোদস্তুর পেস বোলার খেলানোর পক্ষে।

আশরাফুলের দলে নেই লিটন দাস। তার করা একাদশ নিয়ে আশরাফুলের ব্যাখ্যা, গতকাল ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার সাথে তার কয়েকদিন আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে তিন ম্যাচের সিরিজ আর নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে সমান সংখ্যক ম্যাচ শেষে ৬ ম্যাচে লিটন দাস চরম ব্যর্থ।

আশরাফুল বলেন, ‘একটি দুটি ম্যাচ হলে বলতাম না। আর ঘরের মাঠে ভাল খেলে নিউউজিল্যান্ডে গিয়ে রান না পেলেও হয়ত লিটনকে না খেলানোর পক্ষে যুক্তি দাঁড় করাতাম না। কিন্তু লিটন দুই জায়গায়ই খারাপ খেলেছে। একদমই রান পায়নি। রান করতেই কষ্ট হয়েছে।

বোঝাই গেছে ফর্মে নেই। আমি অফ ফর্মের লিটনকে খেলানোর বিপক্ষে। তার বদলে সৌম্য আমার ফার্স্ট চয়েজ। আমি তামিম ইকবালের সাথে সৌম্যকে দিয়ে ওপেন করাতে চাই।’কিন্তু কেন? সৌম্যও তো ওয়ানডেতে বিশেষ সুবিধা করতে পারেনি। তারও তো শেষ চার ম্যাচে (৭, ০, ৩২, ১) ম্যাচে রান নেই।

আশরাফুল ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, ‘তা পারেনি সত্য, তবে সৌম্য নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে সাহসী ও আগ্রাসী ব্যাটিং করেছে। তার ওই ২৭ বলে ৫১ রানের ইনিংস অবশ্যই ভিতরে সাহস সঞ্চারিত হয়েছে।

নিউজিল্যান্ডের অনভ্যস্ত ও প্রতিকুল কন্ডিশনে কিউই বোলারদের বিপক্ষে এমন আক্রমণাত্মক ইনিংস খেলার পর আমার মনে হয় অফফর্মের লিটনের চেয়ে সৌম্যই ওপেনিংয়ে বেটার অপশন। আমি প্রথম দুই ম্যাচে ওপেনার হিসেবে খেলানোর পক্ষে তাকে।’

আশরাফুলের মনোনীত একাদশঃ তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহীম, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান ও সাইফুদ্দিন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment