ব্রেকিং নিউজঃ ৬,৬,৬,৬,৬,৬ আবারও ৬ বলে ৬ ছক্কা দেখলো ক্রিকেট বিশ্ব

এক ওভারে ছয় ছক্কা! একেবারে অসম্ভব নয়। কিন্তু সবসময় সম্ভবও নয়। খুবই কঠিন একটি কাজ। এবার সেই অসম্ভব কাজটি করে বিরল ক্লাবে নিজের নাম লিখলেন অরিথরন বাসিকরন।

এক ওভারে ছয়টি ছক্কা হাঁকিয়ে যুবরাজ সিং ও হার্শেল গিবসদের সঙ্গে একই আসনে জায়গা করে নিলেন ৩৪ বছরের এই ক্লাব ক্রিকেটার। শুক্রবার ইউরোপিয়ান টি-টেন ক্রিকেট টুর্নামেন্ট (ইসিএস) এই ইতিহাস গড়েন অরিথরন।

টি-টোয়েন্টির পর টি-টেন ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। বিশেষ করে ইউরোপের দেশগুলোতে, যেখানে ফুটবলের বাজার রমরমা সেখানে ক্রিকেটের টি-টেন সংস্করণ ধীরে ধীরে জায়গা করে নিচ্ছে। ইউরোপীয়ান ক্রিকেট সিরিজে টি-টেন টুর্নামেন্টে ইতিহাস গড়ে ক্রিকেট বিশ্বে নিজের নাম ছড়ালেন অরিথরন।

ইউরোপিয়ান সিরিজের টি-টেন লিগে বিইউ বুস্টার্সের হয়ে ব্যাট করতে নেমে অনবদ্য কৃতিত্ব অর্জন করেন তিনি। কন চ্যালেঞ্জার্সের বিরুদ্ধে ইনিংসের পঞ্চম ওভারে আয়ুশ শর্মার ওভারের ছ’টি বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে নজির গড়েন অরিথরন।

অরিথরনে এই কৃর্তীতে ক্রিকেট ফ্যানেরা সোশাল মিডিয়া তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। আয়ুশের ওভারে মাঠের সব দিক দিয়েই ছক্কা হাঁকান অরিথরন। প্রথম ছক্কাটি মারেন মিড-উইকেটের উপর দিয়ে। ফুল লেন্থ ডেলিভার মাঠের বাইরে পাঠাতে অসুবিধা হয়নি অরিথরনের।

দ্বিতীয় বলটি লেন্থে রাখলেও পরিণাম একি হয়। এবার অবশ্য পুল শটে স্কোয়ার লেগ বাউন্ডারির উপর দিয়ে ছক্কা মারেন তিনি৷ পরের বলটি আয়ুশ স্টাম্পে রাখলেও ছক্কা হাঁকান অরিথরন। পরের ডেলিভারিতে এগিয়ে এসে ডিপ মিড-উইকেটের উপর গিয়ে ছক্কা মারেন তিনি।

প্রথম চারটি বলে ছক্কা খেয়ে পঞ্চম ডেলিভারি হাফ-ভলি দেন আয়ুষ। তা মিস করেননি বিইউ বুস্টার্সের এই ব্যাটসম্যান। এগিয়ে এসে স্কোয়ার লেগের উপর দিয়ে মাঠের বাইরে পাঠান অরিথরন। আর ওভারের শেষ ডেলিভারি লেন্থে রাখলেও তাতেও ছক্কা হাঁকান অরিথরন।

এক ওভারে ছয়টি ছক্কার ইতিহাসে ঢুকে পড়া অত্যন্ত গর্বের। এখনও পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেট মিলিয়ে মাত্র কয়েকজন ক্রিকেটার এক ওভারের ছ’টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন৷ যুবরাজ সিং, হার্শেল গিবস, কায়রন পোলার্ড, রবি শাস্ত্রী, গ্যারি সোবার্স, হোয়াইটলি, হজরতউল্লাহ, লিও কার্টারদের সঙ্গে একাসনে বসে পড়লেন এবার অরিথরন।

শেষ পর্যন্ত ৩টি চার ও ৭টি ছক্কার সাহায্যে ২৫ বলে ৬১ রান করে শ্রীনিবাসের বলে আউট হন তিনি। তার দল বিইউ বুস্টার্স নির্ধারিত ১০ ওভারে ৮ উইকেটের বিনিময়ে ১১৫ রান তোলে। জবাবে ১০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ৬৩ রানের বেশি তুলতে পারেনি কন চ্যালেঞ্জার্স।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment