আইপিএলে আর না গেলেও পুরো টাকা পাবেন সাকিব-মুস্তাফিজরা?

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় খেলোয়াড়রা ভারত ছেড়েছেন। কেউ কেউ ফিরেছেন নিজ বাড়িতে, কেউ আবার কোয়ারেন্টিন শেষ করে ফিরবেন। স্থগিত হওয়া আইপিএল আর কবে মাঠে গড়াবে, সেই নিশ্চয়তা নেই কোনো মহলে।

আইপিএল মাঠে না গড়ালে ২৫০০ কোটি রুপির মত ক্ষতি হবে বিসিসিআইয়ের। তবে দুশ্চিন্তা নেই খেলোয়াড়দের। কারণ চতুর্দশ সংস্করণ সম্পন্ন না হলেও তাদের কোনো লোকসান হবে না। এমনকি পরবর্তীতে আসর মাঠে গড়ালে আর সেই অংশে তারা খেলতে না পারলেও পাবেন পুরো পারিশ্রমিক।

আইপিএলে খেলোয়াড়দের বেতন দেওয়া হয় তিন ধাপে। মূলত সেই অর্থ পরিশোধ করা হয় বীমার মাধ্যমে। দলগুলো খেলোয়াড়দের সাথে চুক্তির সময়ই বীমার কথা উল্লেখ করা হয়। সেই অনুযায়ী, কোনো কারণে নির্ধারিত সময়ে খেলা না হলেও খেলোয়াড়রা টাকা পাবেন।

খেলোয়াড়রা ইতোমধ্যে একটি কিস্তিতে পারিশ্রমিক পেয়েছেন। বাকি আছে আর দুই ধাপ। এ বছরই অন্য কোনো সময়ে আইপিএলের স্থগিত হওয়া অংশ আয়োজন করতে চায় বিসিসিআই। তবে সেই সময় খেলোয়াড়রা যে খেলার জন্য প্রস্তুত থাকবেন, এমন নিশ্চয়তা নেই। ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, বাংলাদেশ, আফগানিস্তানসহ অনেক দেশেরই থাকবে আন্তর্জাতিক খেলার সূচি।

সেই দেশগুলোর ক্রিকেটাররা যদি জাতীয় দলের খেলা বেছে নিতে চান, তাহলে তাহলে আইপিএলে খেলার জন্য জোর করতে পারবে না ফ্র্যাঞ্চাইজিরা। এমনকি বেতনও কেটে রাখার সুযোগ নেই। দিতে হবে পুরো পারিশ্রমিকই। অতীতেও ফ্র্যাঞ্চাইজিরা পারিশ্রমিক প্রদানে ব্যর্থ হলে তা মিটিয়েছে বীমা।

এবারের আসরে বাংলাদেশ থেকে আইপিএল খেলতে গিয়েছিলেন দুইজন। কলকাতা নাইট রাইডার্সে খেলেছিলেন সাকিব আল হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান খেলেছিলেন রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে। ভারতে সম্ভব না হলেও বিকল্প ভেন্যুতে আইপিএলের বাকি অংশ আয়োজন করবে বিসিসিআই। তবে ঠাসা আন্তর্জাতিক সূচির কারণে সেই অংশে খেলতে পারবেন না অনেক বিদেশি ক্রিকেটারই।

Related Post

x