ক্রিকেটারদের আইপিএলে খেলতে দেবে না ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড

আইপিএল ২০২১ শুরুর ঠিক আগেই মাইকেল ভনের মতো ইংল্যান্ডের প্রাক্তন তারকারা কড়া সামোলোচনা করেছিলেন ইসিবির। জাতীয় দলের থেকে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগকে যদি ব্রিটিশ ক্রিকেটাররা প্রাধান্য দেন, তবে তাঁদের ছেঁটে ফেলার দাবি উঠেছিল সেই সময়।

যদিও ইসিবির ডিরেক্টর অফ ক্রিকেট অ্যাশলে জাইলস সেপথে হাঁটার পক্ষপাতী ছিলেন না। তাঁর আশঙ্কা ছিল, আইপিএল খেলা আটকালে বেশ কিছু ভালো ক্রিকেটারদের হারাতে পারে বোর্ড। তাই ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে বেশ কয়েকজন প্রথম সারির ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দেয় ইংল্যান্ড। তবে তাঁরাই আইপিএলের কার্যত সব ম্যাচে অংশ নেন। আইপিএল ২০২১ মাঝপথেই স্থগিত হয়ে যাওয়ায় ক্রিকেটার ছাড়া নিয়ে সমস্যা দেখা দিতে পারে পুনরায়।

কেননা নতুন উইন্ডোয় আইপিএলের বাকি অংশ অনুষ্ঠিত হলে সেই সময় আন্তর্জাতিক সিরিজ থাকতে পারে অন্যান্য দেশের। বিশেষ করে ইংল্যান্ডের সামনে রয়েছে ঠাসা ক্রীড়াসূচি। আপাতত ইসিবির তরফে জাইলস ইঙ্গিত দিলেন যে, নতুন উইন্ডোয় আইপিএলের বাকি অংশ খেলা হলে ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা কোনওভাবেই জাতীয় দলের সূচি উপেক্ষা করতে পারবেন না। অর্থাৎ, ইংল্যান্ডের সিরিজের সঙ্গে আইপিএল সূচির যদি সংঘাত বাঁধে, তবে ব্রিটিশ ক্রিকেটারদের কোনওভাবেই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগের জন্য ছাড়া হবে না।

আসলে যে সব ব্রিটিশ ক্রিকেটাররা আইপিএলের শেষ পর্যন্ত মাঠে নামতেন, তাঁদের নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে পাওয়ার সম্ভাবনা থাকত না। সেকারণেই দেখা দিয়েছিল বিতর্ক। বোর্ডের তরফে সাফাই দেওয়া হয়েছিল যে, নিউজিল্যান্ড সিরিজ একেবারে শেষ মুহূর্তে নিশ্চিত হয়েছে। তার আগেই আইপিএলের জন্য ক্রিকেটারদের এনওসি দেওয়া হয়ে গিয়েছিল। তবে এবার ইংল্যান্ডের হাতে রয়েছে পূর্ণাঙ্গ সূচি। তাই সিরিজের মাঝে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের আইপিএের জন্য কোনওভাবেই ছেড়ে দিতে রাজি নয় ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড।

যার অর্থ, রাজস্থান রয়্যালস বাটলার, আর্চার, স্টোকদের নাও পেতে পারে আইপিএলের বাকি অংশে। স্যাম কারানকে ছাড়াই মাঠে নামতে হতে পারে চেন্নাইকে। তবে সবথেকে বড় সমস্যা দেখা দেবে কেকেআরের। কেননা মর্গ্যানকে না পেলে ক্যাপ্টেন বদলাতে হবে তাদের।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment