একসাথে তিন পাক বোলারের অনন্য কীর্তি, সাথে ভাঙ্গলেন ১৯০৯ সালের রেকর্ড

দুই ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে জিম্বাবুয়েকে ইনিংস ও ১৪৭ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে ২-০ তে সিরিজ জিতেছে পাকিস্তান। এই ম্যাচ জয়ের সাথে অধিনায়ক বাবর আজম গড়েছেন পাকিস্তানের প্রথম অধিনায়ক হিসেবে অধিনায়কত্বের প্রথম চার ম্যাচেই জয়ের রেকর্ড। এই টেস্টে দুর্দান্ত বোলিংয়ে দারুণ রেকর্ড গড়েছেন পাকিস্তানের তিন বোলার।

আগের দিনের ৯ উইকেটে ২২০ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামা স্বাগতিকরা আজ আর টিকতে পেরেছে আর পাঁচ ওভার। স্কোরবোর্ডে রান যোগ করতে পারে আর ১১। শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে রিজওয়ানের হাতে ক্যাচ তুলে সাজঘরমুখী হন লুক জংবি।

মূলত এদিন সবার দৃষ্টি ছিল শাহিনের দিকে। কারণ আগের দিন চার উইকেট তুলে নেওয়ায় আরও একটি ফাইফারের সামনে ছিলেন তিনি। তার ফাইফারে অনন্য একটি রেকর্ডও হবে। পাকিস্তানের হয়ে প্রথমবার একই টেস্টে তিন জন বোলার পাঁচ উইকেট নেওয়ার অনন্য কীর্তি গড়বেন। শেষ পর্যন্ত পেরেছেন এ পেসার। পাকিস্তানের হয়ে প্রথম হলেও টেস্টে ইতিহাসে এমন কীর্তি রয়েছে আরও পাঁচটি।

প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট তুলে নিয়েছেন হাসান আলী। দ্বিতীয় ইনিংসে অসাধারণ বোলিংয়ের ধারাবাহিকতা রাখলেও কোনো উইকেট পাননি তিনি। এ ইনিংসে জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানদের সমান ভাগে তুলে নেন নোমান আলী ও শাহিন শাহ আফ্রিদি।

এদিকে একটি বিশ্ব রেকর্ডে নাম লিখিয়েছেন দুই বাহাতি বোলার নোমান আলী ও শাহিন আফ্রিদি। ক্রিকেট ইতিহাসে একই ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেওয়ার দ্বিতীয় কোন বাহাতি জুটি এটি। এর আগে ১৯০৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এই রেকর্ড গড়েছিলেন ইংল্যান্ডের দুই বাহাতি বোলার জর্জ হার্স্ট ও কলিন ব্লাইথ।

Related Post