বাড়তি ১টি চ্যালেঞ্জ নিয়ে শ্রীলঙ্কার অপেক্ষায় বাংলাদেশ

ক্রিকেটে বড় দুঃসময় পার করছে বাংলাদেশ। করোনার মধ্যে প্রথম বিদেশ সফরে গিয়ে হয়েছে ভরাডুবি। সীমিত ওভারের দুই ফরম্যাটেই কিউইদের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। এরপর শ্রীলঙ্কাতে সাদা-পোশাকেও মলিন। সবমিলিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার মতো অবস্থা।

টানা ব্যর্থতার মধ্যেই কদিন বাদে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। সফরকারীদের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলবে স্বাগতিকেরা। আর ঘরের মাঠেই বাড়তি চ্যালেঞ্জ নিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লড়াই করতে মুখিয়ে আছেন তরুণ পেসার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। মূলত আগের সিরিজে হারায় এই লড়াইটা একটু চ্যালেঞ্জিং হবে বলেই মনে করেন এই বোলিং অলরাউন্ডার।

লঙ্কানদের বিপক্ষে সিরিজকে সামনে রেখে এরই মধ্যে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে বাংলাদেশ দল। অনুশীলনে আসা সাইফউদ্দিন বিসিবির পাঠানো এক ভিডিও বার্তায়, ‘সবশেষ সিরিজে আমরা প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারিনি, যা সত্যিই হতাশাজনক। ঘরের মাঠে যেহেতু শ্রীলঙ্কার সঙ্গে খেলা, অবশ্যই আমরা চেষ্টা করব সিরিজ জেতার।

রোজা রেখেও আমরা অনেক কঠিন পরিশ্রম করছি যেহেতু সামনে খেলা রয়েছে। যদিও কিছুদিন আগে ওদের মাটিতে হেরে এসেছি তাই আমাদের জন্য এটা বাড়তি চ্যালেঞ্জ। দেশের মাটিতে যদি সিরিজটা জিততে পারি, সঙ্গে আইসিসির সুপার লিগের একটা পয়েন্টের ব্যাপার আছে। চেষ্টা করব পয়েন্টগুলো পাওয়ার।’

সাইফউদ্দিন আরও বলেন, ‘প্রথম ১০ ওভারেই ম্যাচের প্রেক্ষাপট নির্ধারণ করে দেয়। আমাদের বোলারদের জন্য বড় দায়িত্ব থাকে প্রথম ১০ ওভারে উইকেট বের করে দেওয়া। ইকোনোমিক্যাল বল করা, টপ অর্ডারের এক-দুজন ব্যাটসম্যান ফেলে দেওয়া, যেটা আমরা নিউজিল্যান্ড সিরিজে করতে ব্যর্থ হয়েছি। ইনশাআল্লাহ এবার চেষ্টা করব, যেহেতু চেনা কন্ডিশনে ঘরের মাঠে আমাদের মিরপুরে অনুশীলন করছি। উইকেটও আমাদের চেনা। আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।’

আগামী ২৩ মে থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ওয়ানডে সিরিজ। প্রথম ওয়ানডের পর দ্বিতীয় ম্যাচের আগে থাকছে দুদিন বিরতি। সিরিজের পরের দুটি ম্যাচ হবে ২৫ ও ২৮ মে। সবগুলো ম্যাচই হবে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। সিরিজ শেষে ২৯ মে ঢাকা ছাড়বে লঙ্কানরা। সিরিজটি ওয়ানডে সুপার লিগের অংশ।

Related Post

x