Lpl Shakib

মাত্র পাওয়াঃ সাকিবের বলে হৃদয়ের চার-ছক্কা, জিতল জাফনা

সাকিবের বলে হৃদয়ের চার-ছক্কা, জিতল জাফনা
১১৮ রানের সহজ টার্গেট। রান তাড়ায় রীতিমতো ঝড় তুললেন জাফনা কিংসের দুই ব্যাটার তাওহীদ হৃদয় ও রহমানুল্লাহ গুরবাজ। আফগান ওপেনার ৩৯ বলে ৩ চার ও ৫ ছয়ে ৫৪ রান করে সাজঘরে ফিরলেও ২৩ বলে ২ চার ও ৪ ছক্কায় ৪৪ রানে অপরাজিত থাকলেন হৃদয়। তাতে ২ উইকেটে ১৩ ওভারেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় জাফনা। অন্যদিকে চলতি লঙ্কা ক্রিমিয়ার লিগে টানা দুই জয়ের পর প্রথম হারের স্বাদ পেল সাকিব আল হাসানের গল টাইটান্স।

শুক্রবার পাল্লেকেল্লেতে জাফনার বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে নেমে একের পর এক উইকেট হারাতে থাকে গল টাইটান্স। দলের বিপদের মুহূর্তে ব্যাটিংয়ে নেমে হাল ধরতে পারেননি সাকিবও। ৯ বলে মাত্র ৬ রান করে দিনের সেরা বোলার দুনিথ ভেল্লালাগের শিকার হন টাইগার অলরাউন্ডার।

আগের ম্যাচে তাণ্ডব চালানো টিম সেইফার্টও ব্যর্থ হলেন এদিন। মাত্র ১৮ রানে থামেন তিনি। ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে অধিনায়ক দাসুন শানাকার ৩০ রানে ভর করে কোনো রকমে ১০০ পেরোয় গল।

শানাকা ও সেইফার্ট ছাড়া শেভন ড্যানিয়েল (২৫) ও লাসিথ ক্রুসপুরে (১৯) দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছান। নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেটে গল করতে পারে কেবল ১১৭ রান।

নিজের নির্ধারিত চার ওভারে ৪ ব্যাটারকে ফিরিয়ে গলকে এদিন মূলত দাঁড়াতে দেননি স্পিনার ভেল্লালাগে। পরে ম্যাচসেরাও হয়েছেন এই স্পিনার।

এদিকে, ব্যাট হাতে বাজে দিনে বোলিংয়ে শুরুটা ঝলমলে করেছিলেন সাকিব। নিজের প্রথম ওভারেই ব্রেকথ্রু এনে দেন টাইগার অলরাউন্ডার। দলীয় ১৭ রানের মাথায় সাকিবের বলে কাটা পড়েন জাফনা ওপেনার আসালাঙ্কা (৫)।

ধারাবাহিক ব্যাটিংয়ে প্রতিদিনই ব্যাটিংয়ে প্রমোশন হচ্ছে হৃদয়ের। আজ নামলেন ওয়ান ডাউনে। পঞ্চম ওভারে সাকিবের মুখোমুখি হয়ে প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকান হৃদয়। পরের বলও বাউন্ডারি ছাড়া করলেন।

এরপর ১৩তম ওভারে টানা দুটি ছক্কা মেরে দলকে জেতান হৃদয়। ২৩ বলে ২ চার ও ৪ ছয়ে ৪৪ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি।

জাফনার দুটি উইকেটই নেন সাকিব। এছাড়া বাকিরা কেউই সাফল্য পায়নি। এ জয়ে ৩ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠে গেলো জাফনা। সমান পয়েন্ট পেলেও নেট রান রেটে দ্বিতীয় স্থানে নেমে গেছে গল।