নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি

নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি | নগদ ইসলামিক একাউন্ট এর সুবিধা

নগদ ইসলামিক একাউন্ট কিঃ আমাদের দেশে ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেনের বর্তমান নাম নগদ। ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন এখন মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় রূপান্তর হয়েছে। এই নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে আমরা সচরাচর টাকা লেনদেন করে থাকি।

সাম্প্রতিক সময়ে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সেবার নতুন আরেকটি সেবা হলো নগদ ইসলামিক একাউন্ট। আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ মুসলিম। একজন মুসলমান সবসময় ইসলাম শরিয়া অনুযায়ী টাকা আদান প্রদান করতে চায়। এই জন্য নগদ কর্তৃপক্ষ নগদ ইসলামিক একাউন্টের যাত্রা শুরু করেছে।

তবে আমরা অনেকেই জানি না,  নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি ও নগদ ইসলামিক একাউন্ট এর সুবিধা কি কি। তাই আপনাদের সামনে এ বিষয়টি উন্মোচন করার জন্য আমাদের আজকের এই আয়োজন। চলুন আমাদের মূল আলোচনা শুরু করি।

নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি? 

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং হলো বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং এর মতই একটি সেবা। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর জনপ্রিয়তা বর্তমান সময়ে অনেক বেশি। এই কারণে নগদ কর্তৃপক্ষ নগদ ইসলামিক একাউন্টের যাত্রা শুরু করেছে। আমাদের দেশের অধিকাংশ জনগণ ইসলাম ধর্মের মানুষ।

একজন ইসলাম ধর্মের মানুষ সব সময় ইসলামিক শরীয়ত অনুযায়ী টাকা লেনদেন করে থাকে। অর্থাৎ, ইসলাম সব সময় সুদবিহীন লেনদেন করতে পছন্দ করে। এই কারণে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সেবা নগদ ইসলামিক একাউন্ট এর যাত্রা শুরু করেছে। যে সকল মুসলমান ভাই-বোনেরা সুদবিহীন লেনদেন করতে চান, তাদের জন্য মূলত নগদ ইসলামিক একাউন্ট। আশা করি, নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি তা জানতে পেরেছেন।

নগদ ইসলামিক একাউন্টের সুবিধা

নগদ ইসলামিক একাউন্টের মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন রকম সুযোগ-সুবিধা পাবেন। চলুন জেনে নেই,নগদ ইসলামিক একাউন্টের সুযোগ-সুবিধা কি কি।

নগদ ইসলামিক একাউন্ট এর মাধ্যমে আপনি সম্পূর্ণ সুদবিহীন টাকা লেনদেন করতে পারবেন। অর্থাৎ, আপনি যদি নগদ একাউন্টে টাকা জমা রাখেন, তাহলে সেই টাকা থেকে আপনি কোন মুনাফা পাবেন না।
বর্তমানে নগদ ইসলামিক একাউন্টের জন্য অ্যাপ চালু করা হয়েছে। আপনি গুগল প্লে-স্টোর থেকে নগদ ইসলামিক অ্যাপ ইনস্টল করে ব্যবহার করতে পারেন। নগদ ইসলামিক অ্যাপ দিয়ে টাকা লেনদেন প্রক্রিয়া আরও সহজ।

নগদ ইসলামিক একাউন্টের আরেকটি সুবিধা হল যাকাত নির্ধারণ করা। আপনি নগদ ইসলামিক একাউন্টের মাধ্যমে যাকাতের টাকা নির্ধারণ করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে নগদ ইসলামিক মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে। নগদ ইসলামিক অ্যাপ দিয়ে আপনার যাকাতের টাকা খুব সহজে নির্ণয় করতে পারবেন।

এছাড়াও নগদ ইসলামিক একাউন্ট দিয়ে টাকা ক্যাশ আউট, ক্যাশ ইন, মোবাইল রিচার্জ ও বিভিন্ন রকমের বিদ্যুৎ বিল দিতে পারবেন।

নগদ ইসলামিক একাউন্ট খোলা নিয়ম

নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি এটা জানার পর, এখন নিশ্চয়ই ইচ্ছা করছে নগদ ইসলামিক একাউন্ট কিভাবে খুলতে হয় তা সম্পর্কে। খুব সহজেই আপনি নগদ ইসলামিক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। তবে আমাদের অনেকের সাধারণ নগদ একাউন্ট রয়েছে। কিন্তু আপনি নিজেই সাধারণ নগদ অ্যাকাউন্ট থেকে ইসলামিক নগদ একাউন্টে রূপান্তর করতে পারবেন।

সাধারণ নগদ একাউন্ট থেকে ইসলামিক একাউন্টে রূপান্তর করার জন্য আপনাকে প্রথমে নগদ অ্যাপে যেতে হবে। এখন আপনাকে “মাই নগদ” অপশনে ক্লিক করতে হবে।

তারপর নিচে দেখবেন অ্যাকাউন্ট টাইপ নামে একটি অপশন রয়েছে। এখন আপনাকে নগদ ইসলামিক অ্যাকাউন্ট অপশনে ক্লিক করতে হবে।ব্যাস হয়ে গেল সাধারণ নগদ একাউন্ট থেকে একটি ইসলামিক নগদ একাউন্ট।

এখন আপনার যদি কোন নগদ  একাউন্ট খোলা না থাকে। তাহলে *১৬৭# কোড ডায়াল করুন। তারপর ৪ সংখ্যার পিন কোড লিখুন। পুনরায় আবার সেই আগের পিন কোড দিতে হবে। এখন তৈরি হয়ে গেল নতুন একটি ইসলামিক নগদ অ্যাকাউন্ট।

পরিশেষে

আশা করি, নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি ও নগদ ইসলামিক একাউন্টের সুবিধা গুলো আপনি জানতে পেরেছেন। আমাদের দেশের মুসলমানদের সুবিধার জন্য নগদ কর্তৃপক্ষ নগদ ইসলামিক একাউন্টের যাত্রা শুরু করেছে। আমাদের সবার উচিত নগদ ইসলামিক একাউন্ট এর মাধ্যমে টাকা লেনদেন করা।

তাই আপনি আজকে থেকেই নগদ সাধারণ একাউন্ট থেকে নগদ ইসলামিক একাউন্টে ট্রান্সফার করে ফেলুন। এছাড়াও আপনি নগদ সাধারণ একাউন্ট এর চেয়ে ইসলামিক একাউন্টের সুবিধা অনেক বেশি পাবেন। নগদ ইসলামিক একাউন্ট সম্পর্কে যদি কোন প্রশ্ন থাকে, আমাদের ব্লগে কমেন্ট করতে পারেন।