মাহমুদউল্লাহ-আফিফকে নিয়ে মুখ খুললেন হাথুরুসিংহে

nnv

বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ফিনিসার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বাংলাদেশের বড় বড় জয়ে তার অবদান সবচেয়ে বেশি। বিশেষ করে আইসিসি ইভেন্টে বাংলাদেশকে বড় সফল্য এনে দিয়েছেন তিনি। তবে সম্প্রতি বিশ্রামের নামে জাতীয় দল থেকে আছেন বাইরে। বিশ্বকাপের সময় যত ঘনিয়ে আসছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আর আফিফ হোসেন ধ্রুবকে নিয়ে আলোচনটা যেন ততই প্রখর হচ্ছে। তবে তাদের দুজনকে নিয়ে আগেরে অবস্থানেই রয়েছেন চান্দিকা হাথুরুসিংহে। যদিও বাংলাদেশের প্রধান কোচ নিশ্চিত করেছেন, বিশ্বকাপের আগে তাদের ম্যাচ খেলার সুযোগ দেয়া হবে।

ওয়ানডে দল থেকে মাহমুদউল্লাহ বিশ্রাম নাকি বাদ, বেশ কয়েকদিনের এমন আলোচনা শেষে সেটা বিশ্রামেই টিকে গিয়েছিল। তবে পরপর দুই সিরিজে অভিজ্ঞ এই ব্যাটারকে স্কোয়াডে না দেখে বাতিলের খাতায়ই রেখেছেন খালেদ মাহমুদ সুজন। সাবেক টিম ডিরেক্টর জানিয়েছিলেন, মাহমুদউল্লাহকে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দলে দেখছেন না তিনি।

যদিও কিছুদিন আগে হাথুরুসিংহে নিশ্চিত করেছিলেন, বাংলাদেশের বিশ্বকাপ পরিকল্পনায় আছেন ডানহাতি এই ব্যাটার। তবে আয়ারল্যান্ডের সফর ও ঘরের মাঠের সিরিজে মাহমুদউল্লাহর না থাকা নানা আশঙ্কার সৃষ্টি করছে। কারণটাও অবশ্য বেশ পরিস্কার। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ক্রিকেটারের বয়স হয়ে গেলে বিশ্রামের নামে বাদ দিয়ে দেয়া হয়। মাহমুদউল্লাহর ক্ষেত্রে সেটা হবে কিনা তা এখনও নিশ্চিত নয়।

মাহমুদউল্লাহর মতো বয়সের ছাপ না পড়লেও আফিফের পারফরম্যান্স নিয়ে অসন্তুষ্টি আছে হাথুরুসিংহের। বেশ কিছুদিন আগে খানিকটা চটে গিয়ে হেড কোচ বলেছিলেন, ‘অবশ্যই (পারফরম্যান্সের কারণেই দল থেকে বাদ পড়েছে), চেহারার কারণে তো নয়।’ তবে তাদের দুজনকে বিশ্বকাপের পরিকল্পনা থেকে বাইরে রাখছেন না হাথুরুসিংহে।

জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) ব্যস্ত সময় পার করছেন আফিফ ও মাহমুদউল্লাহ। আফিফ ব্যাট হাতে ছন্দে থাকলেও হাসছে না মাহমুদউল্লাহর ব্যাট। তবে বিশ্বকাপের আগে আফগানিস্তান সিরিজ কিংবা এশিয়া কাপে সুযোগ দেয়া হতে পারে সম্প্রতি বাদ পড়া এই দুই ক্রিকেটারকে।

তাদের ব্যাপারে নিজের ভাবনা জানাতে গিয়ে হাথুরুসিংহে বলেন, ‘তাদের (আফিফ হোসেন ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ) ব্যাপারে আমি আগে যা বলেছি সেটিই থাকবে। তারা সবাই মিক্সে আছে। বিশ্বকাপের আগে তারা সবাই-ই খেলার সুযোগ পাবে। আমরা ওই মাইন্ডসেটে কোনো পরিবর্তন করিনি।’

You May Also Like