সকালে ব্যাটিংয়ে নেমে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিলেন মুশফিকুর রহিম এবং লিটন দাস

পাল্লেকেলেতে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে আজ চার উইকেটে ৪৭৪ রানে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করে বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই হাফ সেঞ্চুরি করলেন মুশফিকুর রহিম এবং লিটন দাস। আজ খেলতে নেমে এরই মধ্যে স্কোরবোর্ডে পাঁচ শতাধিক রান জমা করেছে সফরকারীরা। নিজের ২৩তম অর্ধশতক পূর্ণ করেছেন মুশফিকুর রহিম। এছাড়াও নিজের অষ্টম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন দাস। হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৫ উইকেটে ৫১১ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। মুশফিকুর রহিম ৫৫ রান করে অপরাজিত রয়েছেন।

এর আগে আলোক স্বল্পতার কারণে নির্ধারিত সময়ের আগেই দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ হয়ে যায়। তবে পাল্লেকেলেতে প্রথম দুই দিনই দারুণ আধিপত্য দেখিয়েছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানেরা। আজ তৃতীয় দিন মাঠে নেমেছেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস। মুশফিক অপরাজিত আছেন ৪৩ রানে, আর লিটনের সংগ্রহ ২৫ রান।

গতকাল দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশ দলের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেছেন, ‘কাল (আজ শুক্রবার) সকালে দ্রুত কিছু রান করতে হবে আমাদের। ৫২০-এর বেশি রান করে তাদের ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে চাপে ফেলা আমাদের লক্ষ্য। উইকেট খুবই ভালো। তবে বড় রানের পর ব্যাটিং করাটা সব সময়ই চাপের। ওদের ব্যাটসম্যানেরা ক্লান্ত থাকবে, রানের চাপ থাকবে তাদের ওপর। আমাদের ভালো সুযোগ থাকবে ২০ উইকেট নেওয়ার। কাজটা কঠিন, তবে আমাদের চেষ্টা থাকবে সাফল্য পাওয়া।’

এদিকে নাজমুল হোসেন শান্ত ও মুমিনুল হকের অসাধারণ দুটি সেঞ্চুরিতে সাড়ে চার শতাধিক রান করে বাংলাদেশ। শান্ত ১৬৩ ও মুমিনুল ১২৭ রান করেন।

অপরাজিত আছেন মুশফিকুর রহিম (৪৩) ও লিটন দাস (২৫)। গতকাল দিনের খেলা ২৫ ওভারের মতো বাকি ছিল। তাই আজ শুক্রবার নির্ধারিত সময়ের কিছুক্ষণ আগে মাঠে গড়াবে টেস্টের তৃতীয় দিন।

সেঞ্চুরির পাশাপাশি নিজেদের ঝুলিতে নতুন রেকর্ড পুরেছেন মুমিনুল ও শান্ত। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাল্লেকেলে টেস্টের প্রথম ইনিংসে রেকর্ড বইয়ে নাম লিখিয়েছে এই জুটি। দুজন মিলে গড়েছেন ২৪২ রানের জুটি। তৃতীয় উইকেটে এটাই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ জুটি। এর আগে সর্বোচ্চ ছুটি ছিল ২৩৬ রানের। সেই জুটিতেও অবশ্য নাম ছিল মুমিনুলের। সঙ্গে ছিলেন মুশফিকুর রহিম। ২০১৮ সালে এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই আগের রেকর্ড জুটি গড়েন মুমিনুল-মুশফিক।

গতকাল বুধবার টেস্টের প্রথম দিনই নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি তুলে নেন শান্ত। দ্বিতীয় দিন দেড়শ হাঁকিয়ে সম্ভাবনা এগিয়ে নেন ডাবল সেঞ্চুরির দিকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ডাবল সেঞ্চুরির মাইলফলক ছোঁয়া হলো না। ১৬৩ রানে থামল শান্ত এক্সপ্রেস। একদম টেস্ট মেজাজে খেলা শান্ত এই রান তুলতে খেলেছেন ৩৭৮ বল।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment