অবশেষে বাংলাদেশকে হারালো আয়ারল্যান্ড!

tg 9

চলছে বাংলাদেশ বনাম আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ। ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে সিরিজের দুইটি ম্যাচ। দুই ম্যাচেই আয়ারল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ মাঠে গড়াচ্ছে আজ শুক্রবার (৩১ মার্চ)।

শেষ ম্যাচে এসে টসে জিতেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। চট্টগ্রামের আকাশ মেঘলা আজও, যদিও বাতাস আগের দিনের চেয়ে তুলনামূলক কম। নির্ধারিত সময়েই হয়েছে টস। আগেই সিরিজ জেতা বাংলাদেশের লক্ষ্য এবার আয়ারল্যান্ডকে ধবলধোলাই।

আন্তর্জাতিক অভিষেক হচ্ছে লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেনের। তাঁকে জায়গা করে দিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ফিরেছেন বাঁহাতি পেসার শরীফুল ইসলামও, মোস্তাফিজুর রহমানের জায়গায় খেলছেন তিনি।

আয়ারল্যান্ডের একাদশেও এক পরিবর্তন। আজ অভিষেক হচ্ছে আরেক স্পিনারের। আয়ারল্যান্ড দলে খেলছেন বাঁহাতি স্পিনার ম্যাথু হামফ্রিস। তাঁকে জায়গা করে দিয়েছেন গ্রাহাম হিউম।

ফিওন হ্যান্ডের প্রথম বলে চার মেরে শুরু করেছিলেন লিটন দাস। পরের ওভারের প্রথম বল, অফ স্টাম্পের বেশ বাইরের বলে স্ল্যাশ করতে গিয়ে থার্ডম্যানে ক্যাচ তুলেছেন তিনি। ৫ রান করেই আউট হয়েছেন লিটন।

ঠিক যেভাবে চেয়েছিলেন, স্লগ সুইপটা সেভাবে করতে পারলেন না নাজমুল হোসেন। হ্যারি টেক্টরের ঝুলিয়ে দেওয়া বলে ডিপ মিডউইকেটে ক্যাচ দেওয়ার আগে এ বাঁহাতি করেছেন ৮ বলে ৪ রান। আরেকটি ওভার, আরেকটি উইকেট। এবার কার্টিস ক্যাম্ফারের শিকার রনি তালুকদার। ফুললেংথেই ছিল, রনি তুলে মেরেছিলেন। ডিপ মিডউইকেটে ভুল করেননি মার্ক এডেয়ার। রনি থামলেন ১০ বলে ১৪ রান করে। ২৪ রানের মধ্যে ৩ উইকেট নেই বাংলাদেশের।

ঠিক আগের বলেই কাভারের ওপর দিয়ে তুলে চার মেরেছিলেন। মার্ক এডেয়ারের শর্ট বলে এবার পুল করতে গিয়ে শর্ট মিডউইকেটে ক্যাচ দিলেন সাকিব। আগের ওভারে তাওহিদ হৃদয় চারের পর ছক্কা মেরেছিলেন হ্যারি টেক্টরকে, এ ওভারে সাকিবের চারে পাওয়ারপ্লেতে একটু পুষিয়ে দিচ্ছিল বাংলাদেশ। তবে সাকিবের সাকিবের উইকেটে পিছিয়ে গেল আরও। ৬ বলে ৬ রান করেন সাকিব।

উইকেট পড়ার হিড়িক পড়েছে বাংলাদেশ ইনিংসে! এবার বেন হোয়াইটের শিকার তাওহিদ হৃদয়। স্লগ সুইপ করতে গিয়ে খাড়া ওপরে তুলেছিলেন হৃদয়, অফ স্টাম্পের বেশ বাইরে থেকে টেনে খেলতে গিয়েছিলেন। ১০ বলে ১২ রান করেন তাওহিদ হৃদয়।

লাইন-লেংথ চাচ্ছিল সোজা খেলতে, নেমেই যেমন বলে ছক্কা মেরেছিলেন রিশাদ হোসেন। ম্যাথু হামফ্রিসের এ বলে অবশ্য খেলতে চাইলেন আড়াআড়ি শট। লাইন মিস করে হলেন বোল্ড। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম বলেই উইকেটের দেখা পেলেন হামফ্রিস, এক অভিষিক্ত ফেরালেন আরেক অভিষিক্ত ক্রিকেটারকে। ৭ বলে ৮ রান করেন তিনি। ২ বলে ০ রানে ফিরলেন তাসকিন।

ডিলানির লো ফুলটসে টাইমিং ভালোই করেছিলেন নাসুম, তবে সরাসরি ক্যাচ গেছে এক্সট্রা কাভারে। ১৬তম ওভারে ভাঙল শামীমের সঙ্গে নাসুমের ৩৩ রানের জুটি। ১৭ বলে ১৩ রান করেন নাসুম। ৫ বলে ৫ রান করেন শরিফুল। ৪২ বলে ৫১ রানে আউট হয়েছেন শামীম ও ৫ বলে ২ রানে অপরাজিত থাকেন হাসান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় আয়ারল্যান্ড। ফুললেংথ, এডেয়ারের উচ্চাভিলাসী শটের চেষ্টা ব্যর্থ এবং বোল্ড! তৃতীয় ওভারে বাংলাদেশকে প্রথম ব্রেকথ্রু এনে দিলেন তাসকিন আহমেদ। এডেয়ার ফিরেছেন ৭ রান করে। অফ স্টাম্পের বাইরে দিয়ে বেরিয়ে যাওয়া বল। সেটিতে আরও জায়গা বানিয়ে খেলতে গিয়েছিলেন লরকান টাকার। হয়েছেন কট বিহাইন্ড। মাঝে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে সুযোগ না পাওয়া শরীফুল ইসলাম উইকেট পেলেন নিজের প্রথম বলেই।

বলটা উঠল বেশ ওপরে। লং অন থেকে নিজের বাঁদিকে ছোটার অনেক সময়ও পেলেন নাজমুল হোসেন। শেষ পর্যন্ত নিয়েছেন ভালোভাবেই। পল স্টার্লিং—রিশাদ হোসেনের প্রথম আন্তর্জাতিক উইকেট! ৪১ বলে ৭৭ রানের ঝোড়ো ইনিংস শেষ হলো স্টার্লিংয়ের। ম্যাচ শেষ করে আসতে পারলেন না, তবে আয়ারল্যান্ডের জয় অনেকটাই নিশ্চিত করে দিয়ে গেছেন তাদের অধিনায়ক।

তাসকিনের বলে হুক করে ছক্কা মারলেন কার্টিস ক্যাম্ফার, ১৪তম ওভারের শেষ বলেই জয় নিশ্চিত করল আয়ারল্যান্ড। এক বল আগে ক্যাম্ফার মেরেছেন চারও। ৩৬ বল বাকি থাকতে ৭ উইকেটের দাপুটে জয়ে ধবলধোলাই এড়াল আয়ারল্যান্ড। বাংলাদেশকে সন্তুষ্ট থাকতে হলো ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেই।

টার্গেট: জয়ের জন্য আয়ারল্যান্ডকে ১২৫ রান করতে হবে।

বাংলাদেশ একাদশ

সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), লিটন দাস, রনি তালুকদার, তাওহিদ হৃদয়, নাজমুল হোসেন, শামীম হোসেন, শরীফুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, হাসান মাহমুদ, রিশাদ হোসেন ও নাসুম আহমেদ।

আয়ারল্যান্ড একাদশ:

পল স্টার্লিং (অধিনায়ক), রস অ্যাডায়ার, লোরকান টাকার (উইকেটরক্ষক), হ্যারি টেক্টর, কার্টিস ক্যাম্পার, জর্জ ডকরেল, গ্যারেথ ডেলানি, মার্ক অ্যাডায়ার, ফিওনেন হ্যান্ড, গ্রাহাম হিউম ও বেন হোয়াইট।

You May Also Like