ব্রাজিল মরক্কোর কাছে হেরে হাস্যকর মন্তব্য করলেন ক্যাসিমেরো

Hgd

এবার প্রীতি ম্যাচ হলেও ব্রাজিলের কাছে ম্যাচটা ছিল বিশেষ। তিনবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফুটবল কিংবদন্তী পেলের মৃত্যুর পর প্রথমবার মাঠে নেমেছিল সেলেসাওরা। ম্যাচে স্মরণ করা হয়েছিল কালো মানিককে। সবকিছু ব্রাজিলের পক্ষে থাকলেও পক্ষে থাকেনি ম্যাচের ফলটা। কাতার বিশ্বকাপে চমক দেখানো মরক্কোর কাছে ২-১ গোলে হেরে মাঠ ছাড়ে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

এদিন ম্যাচে এগিয়ে যাবার প্রথম সহজ সুযোগটি পায় ব্রাজিল। তবে ডাবল সেভে মরক্কোকে রক্ষা করেন গোলরক্ষক ইয়াসিন বুনো। ২ মিনিটের ব্যবধানে বল জালে পাঠান ভিনিসিয়ুস জুনিয়র। তবে অফসাইডের ফাঁদে সেলেসাও ফরোয়ার্ড। গোল বাতিল ভিএআরে। উল্টো তিন মিনিটের মধ্যে লিড মরক্কোর। ঠাণ্ডা মাথায় ফিনিশিংয়ে সোফিয়ান বুফাল।

এদিকে পিছিয়ে পড়ে দ্বিতীয়ার্ধে সমতায় ফেরাতে মরিয়া কাসেমিরো, রদ্রিগো, ভিনিসিউস জুনিয়ররা। রদ্রিগোর ভলিতে উড়ন্ত বুনো। তবে এবার এই মরক্কান গোলরক্ষকের ভুলেই সমতায় ফেরে ব্রাজিল। কাসেমিরোর দূরপাল্লা শট হাত ফসকে বেড়িয়ে যায়। কাউন্টার অ্যাটাকে মরক্কান সমর্থকদের আনন্দে ভাসান আবদেল হামিদ সাবিরি। তার এই গোল ম্যাচ পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। ক্যামেরুনের পর দ্বিতীয় আফ্রিকান দেশ হিসেবে ব্রাজিলকে হারাল মরক্কো।

এদিন ম্যাচ শেষে নিজেদের হারের কারণ জানান ব্রাজিল অধিনায়ক কাসেমিরো। তিনি বলেন, ‘আমরা দারুণ একটি দলের বিপক্ষে খেলেছি। যারা নিজেদের খেলা পরিকল্পনা সম্পর্কে জানে এবং তাদের কোচও লম্বা সময় ধরে সঙ্গে আছে। আর তাদের ফুটবলাররাও লম্বা সময় ধরে শীর্ষ স্তরের ফুটবল খেলে আসছে।’

এদিকে মরক্কোর বিপক্ষে জয় না পাওয়ার দায় রেফারির ওপর চাপালেন কাসেমিরো। ব্রাজিলের এই অধিনায়ক বলেন, ‘সবার প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, যদিও ব্রাজিল কখনো এ বিষয়ে অভিযোগ করে না। সবচেয়ে বড় সমস্যার কথা বললে, সেটি ছিল রেফারি।’

You May Also Like