20230309 194333

বিশ্বসেরা ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে বোমা ফাটালেন সাকিব আল হাসান

ঘরের মাঠে ইংলিশদের বিপক্ষে তামিম ইকবালের ওয়ানডে দল সিরিজ হারলেও টি-টোয়েন্টিতে জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করল সাকিবরা। টি-টোয়েন্টির বিশ্বসেরা ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে নতুন সূচনা বাংলাদেশের।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে ইংলিশদের দেয়া ১৫৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে উড়ন্ত সূচনা করে বাংলাদেশ। ভালো শুরুর পর রনি তালুকদার ১৪ বলে ২১ রান করে রশিদের বলে বোল্ড। এরপর লিটন ১২ রান করে অর্চারের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন।

তবে নাজমুল হোসেন শান্ত ও তৌহিদ হৃদয় অসাধারণ জুটি গড়ে দলকে এগিয়ে নেন। হৃদয়কে সাথে নিয়ে ৩৯ বলে ৬৫ রানের দারুণ জুটি গড়েন। দারুণ ব্যাট করে তৌহিত অভিষেকেই ১৭ বলে ২৪ রান করে বিদায় নেন। তবে শান্ত হাফসেঞ্চুরি করেই থামেন। ৩০ বলে ৮ বাউন্ডারিতে ৫১ রান করে শান্ত বিদায়ের সময় বাংলাদেশের দলীয় রান তখন ১২.২ ওভারে ১১২ রান। এরপর ক্যাপ্টেন সাকিব ও আফিফ দলকে জয়ে পথে এগিয়ে নেন।

শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে তারা জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। দুজনে মিলে ৩৪ বলে ৪৬ রানে অসাধারণ এক জুটি গড়েন। সাকিব ২৪ বলে অপরাজিত ৩৪ ও আফিফ হোসেন ১৩ বলে করেন ১৫ রান। ১২ বল থাতেই ৪ উইকেটে ১৫৮ রান তোলে স্বাগতিকরা।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ব্যাটিং পাওয়ার-প্লেতে উড়ন্ত সূচনা করে বিশ্বসেরা ইংল্যান্ড। অবশেষে নাসুম ভাঙেন ৮০ রানের ইংল্যান্ডের উদ্বোধনী জুটি। ইংলিশ ওপেনার ৩৫ বলে করেন ৩৮ রান। এরপর মূলত বাটলারই এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন দলকে।

অবশেষে এই ভংঙ্কর ব্যাটারকে ১৬তম ওভারে ফেরান হাসান মাহমুদ। এর আগের বলেই মুস্তাফিজের শিকার হন বেন ডাকেট। বাটলার ৪২ বলে করেন ৬৭ রান। তার ইনিংসে ছিল সমান ৪টি চার ও ৪টি ছয়। ডাকেট ১৩ বলে খেলেন ২০ রানের কার্যকরী ইনিংস শেষ মঈন আলি ৮, ক্রিস জর্ডান ৫ ও ওকস এক রান করেন।

বিশ্বসেরা ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সাকিব বলেন,‘আমরা যেভাবে খেলার কাছে এসেছি তা দুর্দান্ত ছিল। আমরা যখন বোলিং করছিলাম তখন আমরা পাম্পের নিচে ছিলাম কিন্তু কেউ আতঙ্কিত হয়নি। আমার ড্রপ করা ক্যাচ ছাড়া সবাই ভালো ফিল্ডিং করেছে। আমরা সেটাই করতে চাই, যখন আপনি খুব বেশি চিন্তা করবেন না, আপনি ভাল পারফর্ম করেন। আশা করি আমরা এটা চালিয়ে যেতে পারব। এটি একটি খুব ভাল শুরু. আমরা এখান থেকে গড়ে তুলতে পারি। আমরা এখান থেকে শুধুমাত্র ভালো করতে পারি।’