গতকাল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জয়ের সমর্থ্য ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। যদি ব্যাটিংয়ে আরেকটু ভালো করা যেত তাহলে হয়তো এংলান্দের বিপক্ষে এই সিরিজ টাইগারদের পক্ষেই থাকতো। বাংলাদেশ ক্রিকেটে হতে পারত এক অবিশ্বাস্য এক রেকর্ড। এই সিরিজে ব্যাট হাতে রান করতে পারেনি বাংলাদেশের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা।

বিশেষ করে এন্দলান্দের বিপক্ষে এই সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে একদমই বাজে পারফরম্যান্স করেছে তামিম মুশফিকরা। তাইতো টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের কাছ থেকে বড় স্কোর চান দেশের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। সিরিজ হাতছাড়া করলেও শেষ ম্যাচ জেতায় খুশি বাংলাদেশের জয়ের নায়ক সাকিব আল হাসান।

তবে শেষ ওয়ানডেতে ব্যাটিংয়ে ৭৫ রান ও বোলিংয়ে ৩৫ রানে ৪ উইকেট নিয়ে অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে ম্যাচটি জিতিয়েছেন। তবে ব্যাটিংয়ে আরো উন্নতি চান সাকিব। বিশেষ করে টপ অর্ডারে। এই সিরিজে টপ অর্ডার একবারেই ভালো করেনি।

Suggested Post :  ক্রিকেট বিশ্বে সেরা ১০ ভদ্র ক্রিকেটার তালিকাই; ৪ নম্বরে শচীন

লিটন দাশ দুই ওয়ানডেতে খুলতে পারেননি রানের চাকা। আরেক ম্যাচে করেন ৭ রান। তামিমের ব্যাট থেকে আসে যথাক্রমে ২৩, ৩৫ ও ১১ রান। তিনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত দুই ম্যাচে ফিফটি পেয়েছেন। এক ম্যাচে খুলতে পারেননি রানের চাকা। ২ ফিফটি নিয়ে সাকিব করেছেন সর্বোচ্চ ১৪১ রান। এছাড়া মুশফিক প্রথম দুই ম্যাচে রান না পাওয়ার পর আজ চট্টগ্রামে করেন ৭০ রান।

Suggested Post :  শেষমেশ দেশ থেকে চলে গেলেন ড্যাসিং ওপেনার তামিম ইকবাল

ব্যক্তিগত দুয়েকটি অর্জন থাকলেও দলগত অর্জনে পিছিয়ে বাংলাদেশ। এজন্য ব্যাটসম্যানদের বড় স্কোরে নজর দেওয়ার কথা বলেছেন সাকিব। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে সাকিব বলেছেন, “আমাদের টপ অর্ডার যারা ওপরে ব্যাটিং করে তাদের থেকে আমরা সেঞ্চুরির প্রত্যাশা করি। ফিফটি নয় অবশ্যই। এই একটি জায়গায় আমাদের আরো উন্নতি করতে হবে তাহলে আরো ভালো হবে।”

শেষ ওয়ানডেতে দল জেতায় খুশি সাকিব, “আমরা শেষ ৫-৭ বছর ঘরের মাঠে বেশ ভালো খেলে আসছি। দূর্ভাগ্যজনক আমরা সিরিজটা হেরেছি তবে আমরা এই ম্যাচ থেকে গর্ব খুঁজে নিতে পারি। যেভাবে আমরা খেলেছি। আসলে গর্ব করা উচিত যেভাবে আমরা নিজেদের মেলে ধরেছি।”