gs

সাব্বির রহমান না পারলেও করে দেখালেন নাসির হোসেন

স্ট্রাইক রেট ১২০। বল হাতেও বা কম কীসে? ১২ ম্যাচে বাগিয়ে নিয়েছেন ১৬ উইকেট, প্লে-অফের আগপর্যন্ত তিনিই সর্বোচ্চ উইকেটের মালিক। বিপিএলে এক আসরে সাড়ে তিনশর বেশি রান আর পনেরোর বেশি উইকেট নেওয়া খেলোয়াড়রা অতীতে পেয়েছেন টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার।

নাসির বিপিএল সেরা হবেন কি না সেই প্রশ্নের উত্তর সময়ের হাতে। তবে চোখ বুলে এটুকু বলা যায়- জাতীয় দলে নাসিরের একটা সুযোগ এখন প্রাপ্য।টি-২০ দলে পালাবদলের যে গান গাওয়া হচ্ছে, সেই গানের সুরে হয়ত দারুণভাবে মিশে যাবেন নাসির।

মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত বা শেখ মেহেদী হাসান যখন ধারাবাহিকভাবে ভালো করতে ব্যর্থ, তখন নাসিরে একটাবার আস্থা রাখা যেতেই পারে। ব্যাট করে থাকেন ব্যাটিং অর্ডারের মাঝামাঝিতে, তাতেই তাকে অনেকে ফেলে দিয়েছিলেন বাতিলের খাতায়। অথচ বিপিএলে তিন-চারে খেলে রানের ফোয়ারা সাজিয়ে নাসির জানিয়ে দিলেন, তাকে ঠিকমত কাজে লাগাতে পারেনি অনেকেই।

নাসির কি আসলেই ফিনিশড, নাকি তার এখনও অনেক কিছু দেওয়ার বাকি জাতীয় দলকে? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে অন্তত টি-২০ দলে কি একটা সুযোগ দেওয়া হবে নাসিরকে? তেমন কিছু না করেই তো সাব্বির রহমান আবারও গায়ে জড়িয়েছিলেন লাল-সবুজ জার্সি। বিতর্ক পেছনে ফেলে যিনি নিজেকে নতুন করে গড়েছেন শূন্য থেকে, সেই নাসির তো নিশ্চিতভাবেই আরেকটা সুযোগের দাবীদার!