InCollage 20230212 031110710

খেলার মাঠে অবাক করা এক কান্ড করে জরিমানায় জাদেজা

বর্ডার-গ্যাভাস্কার ট্রফির প্রথম ম্যাচে ব্যাট ও বল হাতে অনবদ্য পারফরম্যান্স করেছেন রবীন্দ্র জাদেজা। দুর্দান্ত অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সে ঝুলিতে পুরেছেন ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার। তবে দীর্ঘদিন পর মাঠে ফেরা এ ক্রিকেটার আলোচিত হচ্ছেন আরও একটি বিষয় নিয়ে।

নাগপুর টেস্টের প্রথম দিন নিজের তর্জনী আঙ্গুলে মলম মেখে বোলিং করেছেন জাদেজা। বিষয়টি নিয়ে পরদিন থেকেই তোলপাড় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে শুরু করে পুরো ক্রিকেটপাড়া। এবার বিষয়টিকে আমলে এনেছে আইসিসিও। টেস্ট চলাকালীন তৃতীয় দিনেই ভারতীয় অলরাউন্ডারকে জরিমানা করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

আম্পায়ারের অনুমতি না নিয়ে আঙ্গুলে মলম মাখায় জাদেজার ম্যাচ ফির ২৫ শতাংশ জরিমানা করেছে আইসিসি। শুধু তাই নয়, এ ঘটনার কারণে তাকে একটি ডিমেরিট পয়েন্টও দেওয়া হয়েছে। শনিবার নিজেদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এক বিবৃতি দিয়ে বিষয়টি জানিয়েছে আইসিসি।

বিবৃতিতে আইসিসি জানায়, রবীন্দ্র জাদেজা আইসিসির আচরণবিধির ২.২০ অনুচ্ছেদে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। যেখানে বলা আছে মাঠে এমন কিছু করা যেটা ক্রীড়া চেতনার পরিপন্থি। তবে জাদেজা জরিমানা মেনে নেওয়ায় আনুষ্ঠানিক কোনো শুনানির প্রয়োজন হয়নি।

প্রথম দিন ভারতের ইনিংসে ৪৬তম ওভারে জাদেজা তার সতীর্থ মোহাম্মদ সিরাজের তালু থেকে মলম নিয়ে তার তর্জনীতে মাখে। পরবর্তীতে ভারতের টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে জানানো হয়, জাদেজা কেবল ওষুধ হিসেবেই তার তর্জনী আঙ্গুলে মলম ব্যবহার করেছেন। অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল না। তবে দোষটা তিনি করেছেন আম্পায়ারের অনুমতি না নিয়ে। আম্পায়ারের অনুমতি থাকলে কোনো শাস্তিই পেতে হতো না তাকে। তবে ঘটনার পেছনে অন্য কোনো উদ্দেশ্য পাওয়া গেলে আরও কঠিন শাস্তির মুখোমুখি হতে হতো তাকে।

এদিকে শাস্তি পেলেও বড় ব্যবধানে ভারতকে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জিতিয়েছেন জাদেজা। সিরিজের প্রথম টেস্টে অজিদের ইনিংস ও ১৩২ রানে হারিয়েছে ভারত।