সৌদিতে প্রীতি ম্যাচে লিওনেল মেসির জার্সি নিলামে দাম উঠেছে ৩০ হাজার ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩১ লাখ টাকা। মেসি ছাড়াও আরও ২০ জন ফুটবলারের জার্সি নিলামে তুলেছে তাদের ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। যেখানে মেসির জার্সি পেতেই কাড়াকাড়ি সমর্থকদের।

রোনালদো-মেসির সম্ভাব্য শেষ লড়াইটা দেখে ফেলেছে ফুটবল বিশ্ব। আর হয়তো সময়ের সেরা দুই ফুটবলারকে একসঙ্গে মাঠে দেখা যাবে না। সম্প্রতি সৌদি আরবে একটি প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হন দুই ফুটবল সুপারস্টার। যেখানে মেসি খেলেছেন পিএসজির হয়ে আর রোনালদো নেমেছেন সৌদি ক্লাবের হয়ে।

যদিও প্রীতি ম্যাচটিতে ৫-৪ গোলে মেসিদের কাছে হেরেছে রোনালদোরা। এবার রোনালদোর বিপক্ষে খেলা সেই ম্যাচে মেসির পরিহিত জার্সিটির নিলামে তুলেছে তার ক্লাব পিএসজি। যেটির এখন পর্যন্ত দাম উঠেছে ৩০ হাজার ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩১ লাখ টাকা।

Suggested Post :  সেরা দুইয়ে ব্রাজিল,দেখেনিন আর্জেন্টিনার অবস্থান

ফরাসি ক্লাবটি নিয়মিতই তাদের ফুটবলারদের জার্সি নিলামে তোলে। সমর্থকদেরও আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকে তারকা ফুটবলারদের জার্সি। পিএসজির ওয়েবসাইটে এই নিলামে সমর্থকরা সরাসরি অংশ নিতে পারেন। এবারও সৌদি আরবে রোনালদোদের বিপক্ষে খেলা পিএসজির ফুটবলারদের জার্সি নিলামে তুলেছে ফরাসি ক্লাবটি। যেখানে মেসি ছাড়াও আরও ২০ জনের জার্সি নিলামে তোলা হয়েছে। যেখানে মেসির জার্সি পেতেই কাড়াকাড়ি লেগে গেছে।

পিএসজির এই নিলাম চলবে আরও ৮ দিন। একে তো আর্জেন্টাইন সুপারস্টারের ব্যবহৃত কস্টিউম, তার ওপর রোনালদো-মেসি মহারথের সাক্ষী সেটি। তাই মেসির জার্সির দাম আরও বাড়তেই পারে।

Suggested Post :  ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত করল কানাডা!

বিশ্বকাপ জয়ের পর পিএসজিতে ফিরে অঁজের বিপক্ষে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলেন মেসি। সে ম্যাচে বিশ্বকাপজয়ী তারকার ব্যবহৃত জার্সিটি বিক্রি হয়েছে ৪৭ হাজার ৩০০ ডলারে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ৪৯ লাখ ৯৬ হাজার টাকা। এ ছাড়া নিলামে নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপ্পের জার্সিও বিক্রি করেছে পিএসজি। নেইমারের একটি জার্সি বিক্রি হয়েছে ৮ হাজার ৬১০ ডলারে। এমবাপ্পের দুটি জার্সি বিক্রি হয়েছে- ১৫ হাজার ৩৬২ ডলার এবং ১৬ হাজার ৩৫৩ ডলারে।