1667723922 Untitled 15 copy 660x330 1

অবসর নিয়ে মুখ খুললেন সাকিব; দুঃখের সুরে যা জানালেন অবসরের কথা!

যেদিন আমার কাছে মনে হবে আমি গাড়ির ড্রাইভার না পেসেঞ্জার, সেইদিন আমি খেলা ছেড়ে দেব। মানে যেদিন বুঝব আমি ড্রাইভার না, আমার ওপর ভরসা করে সবাই বসে নেই সেদিন আমি খেলব না।’- ক্রিকেট মাঠে নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে এভাবেই বলেছিলেন বাংলাদেশের টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

এই আলোচনা আচমকা এখানেই কেন করা? চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সাকিব যখন খেলছেন তখন তার বয়স ৩৫ বছর ২২৭ দিন পেরিয়ে যাচ্ছে। পরবর্তী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে এখন থেকে দুই বছর পর।

তখন সাকিবের বয়স বেড়ে দাঁড়াবে ৩৭-এ। তখন কী আর টাইগার জার্সিতে সাকিবকে দেখা যাবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মঞ্চে! এমন আলোচনা এখন থেকেই চলছে। এই বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলার পর সাকিবকে এই প্রশ্ন করেছেন প্রেজেন্টেশনের ধারাভাষ্যকার ড্যানি মরিসনও।

সেখানে সাকিবও নিশ্চিত করে কিছু জানাতে পারেননি। উপরের উক্তির মতোই আবার বলেছেন যদি ফিট থাকতে পারেন, যদি দলের জন্য অবদান রাখতে পারেন তবেই হয়তো দেখা যেতে পারে তাকে।

এবারের আসরে অবশ্য ব্যাট হাতে বেশ বাজে ফর্মে ছিলেন সাকিব। বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বের ৫ ম্যাচ থেকে করেছেন মাত্র ৪৪ রান। বল হাতেও সাকিবময় পারফরম্যান্স ছিল না টাইগার অধিনায়কের।

৬ উইকেট নিয়েছেন ২৮ গড়ে। নিজের এমন পারফরম্যান্স সম্পর্কে বলে সাকিব নিজের ভবিষ্যৎ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাবনা নিয়ে বলেন, আমি জানি না আসলে (২০২৪ বিশ্বকাপ খেলবেন কী খেলবেন না)।

বাংলাদেশের হয়ে যত দিন সম্ভব খেলে যেতে চাই। তবে আমাকে ফিট থাকতে হবে, পারফর্ম করতে হবে। অবশ্যই নিজের পারফরম্যান্সের দিক দিয়েও এটি আদর্শ কিছু ছিল না। আরও ভালো করতে পারতাম। তবে হ্যাঁ, ফিট থাকতে পারলে, দলের জন্য অবদান রাখতে পারলে খেলতে ভালো লাগবে।