টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশের সেরা একাদশ ঘোষণা

ban squad 2022

ক্রিকেটের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফরম্যাট হলো টি-২০। আর সেই জনপ্রিয় ফরম্যাটের বিশ্বকাপ শুরু হচ্ছে আজকে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অষ্টম আসর মাঠে গড়াবে আজ। গতবারের মতো এবার টি-২০ বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব খেলতে হচ্ছে না বাংলাদেশকে। এবার সরাসরি মূল পড়বে খেলবে বাংলাদেশ। যেখানে বাংলাদেশের গ্রুপে রয়েছে এশিয়ার দুই পরাশক্তি ভারত এবং পাকিস্তান।

এছাড়াও এবারের বিশ্বকাপের ডার্ক হর্স দক্ষিণ আফ্রিকার রয়েছে বাংলাদেশের গ্রুপেই। এই গ্রুপে বাকি দুটি দল আসবে বাছাই পর্ব থেকে। যেখানে শ্রীলংকা অথবা ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার যেকোনো একটি দলকে পাবে বাংলাদেশ এটা প্রকার নিশ্চিত। এবার এই প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ইতিহাসে এখনো পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে কোন টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেনি টাইগাররা। যদিও মূল পর্বের আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ যার প্রথমটি আগামীকাল আফগানিস্তানের বিপক্ষে এবং আগামী ১৯ অক্টোবর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এবারের আসরে বাংলাদেশ দলকে নিয়ে প্রত্যাশা একদমই কম। তবুও স্কোয়াডে থাকা ক্রিকেটাররা একসাথে জলে উঠলে যে কোন দলকে হারাতে পারে বাংলাদেশ। ‌টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাংলাদেশের একাদশে এখনো বেশ কয়েকটি জায়গা অনিশ্চিত।

অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা পর শেষ মুহূর্তে দলের দুটি পরিবর্তন করেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। মেকশিফট ওপেনারদের পরিবর্তে নিয়মিত ওপেনারদের দিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলাতে চায় টিম ম্যানেজমেন্ট। যে কারণে শেষ মুহূর্তে চূড়ান্ত দলের সুযোগ পেয়েছেন সৌম্য সরকার।

তার একাদশে থাকা সম্ভব না অনেকটা বেশি। তাই ওপেনিংয়ে দেখা যাবে সৌম্য সরকারকে। তবে নাজমুল হোসেন শান্ত একাদশে সুযোগ পাবে কিনা সেটা অনিশ্চিত। টিম ম্যানেজমেন্ট একজন বাড়তি ব্যাটসম্যান খেলাতে চাইলে একাদশে থাকবেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

তবে একাদশে লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহানের থাকাটা এক প্রকার নিশ্চিত। তবে ইয়াসির আলী এবং মোসাদ্দেক হোসেন বিকল্প হিসাবে রয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। অধিনায়ক একজন বাড়তি স্পিনার চাইলে মেহেদী হাসান মিরাজকে একাদশে নিতে পারেন।

ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে মোস্তাফিজ সেভাবে সুযোগ না পেলেও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তিনি প্রতিটি ম্যাচেই একাদশে থাকবেন এটাই প্রকার নিশ্চিত। যদিও তার বিকল্প হিসেবে রাখা হয়েছে শরিফুল ইসলামকে। তার সাথে তাসকিন আহমেদেরও প্রতিটি ম্যাচে একাদশে থাকবেন।

একাদশে তৃতীয় ফাস্ট বোলার হিসেবে হাসান মাহমুদের থাকার সম্ভাবনা সবচেয়ে। সর্বশেষ ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের ভালো বোলিং করেছেন তিনি। যদিও তার বিকল্প হিসাবে রয়েছেন এবাদত হোসেন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশের সম্ভাব্য সেরা একাদশ: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, লিটন দাস, আফিফ হোসেন, ইয়াসির আলী, মোসাদ্দেক হোসেন, নুরুল হাসান (উইকেট কিপার, সহ-অধিনায়ক), মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান, হাসান মাহমুদ।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশের চূড়ান্ত স্কোয়াড : সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), নাজমুল হোসেন, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, আফিফ হোসেন, ইয়াসির আলী, মোসাদ্দেক হোসেন, নুরুল হাসান (উইকেট কিপার, সহ-অধিনায়ক), মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান, হাসান মাহমুদ, শরীফুল ইসলাম, নাসুম আহমেদ ও ইবাদত হোসেন।

You May Also Like