ম্যাচ হেরে যে কারণকে দুষলেন অধিনায়ক সোহান

আরো একবার হতাশায় সমাপ্ত হলো বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। পরিবর্তনের শুরুতেও সেই পরাজয়টাই স্থায়ী হলো টাইগারদের। ইয়াসির আলী রাব্বি শেষ ওভারে 20 রান নিলেও তা দিল না বাংলাদেশের জন্য। তার দৃঢ় ব্যাটিং করলেও বাংলাদেশের ব্যাটিং ব্যর্থতা হতাশায় ডুবিয়েছে টাইগারদের কে। তাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে পরাজয় দিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরু করলো টাইগাররা।

অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে ছাড়াই মাঠে নামে বাংলাদেশ। তাতে জয়টাও অধরা রয়ে গেল টাইগারদের জন্য, তাতে সিরিজের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে হার দিয়ে শুরু করলো নুরুল হাসান সোহানের দল।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশ হারিয়ে বসে দুই উইকেট। বিদায় নেন দুই ওপেনার, এদিনও ব্যর্থ ছিলেন সাব্বির রহমান। এরপর অবশ্য লিটন এবং আফিফ মিলে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন বাংলাদেশকে যদিও বাংলাদেশের জয়ের স্বপ্নটা টিকেছিল লিটনের ওপর। ২৬ বলে ৩৫ রান করে লিটন বিদায় নিলে বাংলাদেশের স্বপ্নটা যেন শেষ হয়ে যায় সেখানেই। শেষদিকে ইয়াসির আলী রাব্বির ইনিংসটা শুধু ব্যবধানই কমিয়েছে বাংলাদেশের ইনিংসের। শেষ ওভারে ২০ রান নেন ইয়াসির। ২১ বলে ৪২ রান আসে তার ব্যাটে।

আর কেউ লড়াই করতে না পারলে শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের ইনিংস থামে ১৪৬ রানে। তাতে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তান জয় তুলে নেয় ২১ রানে। পরাজয়ের পর হতাশ ছিলেন টাইগার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান। মিডল ওভারের ব্যর্থতাকেই পরাজয়ের কারণ হিসেবে মনে করেছেন তিনি।

হারের পর তিনি বলেন, হতাশাজনক! উইকেট অনেক ভাল ছিল। কিন্তু আমি মনে করি আমাদের বেশ কিছু জায়গায় উন্নতি করতে হবে। বোলাররা অসাধারণ পারফরম্যান্স করেছে তবে বেশ কিছু জায়গায় আমাদের পরিবর্তন আনতে হবে। লিটন, আফিফ ও ইয়াসির অসাধারণ ব্যাটিং করেছে, তবে মাঝে আমরা বেশ কিছু উইকেট হারিয়ে ফেলেছি।

x

You May Also Like