বিশ্বকাপ : বিশ্বকাপের আয়োজক হতে চায় যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেন

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে যুদ্ধাক্রান্ত অবস্থায় আছে ইউক্রেন। রাশিয়ান সেনাবাহিনীর আক্রমণে ইতোমধ্যে দেশটিতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আকাশ ছুঁয়েছে। তবে তাতে দমে যায়নি ইউরোপের দেশটি। ২০৩০ সালের ফুটবল বিশ্বকাপের আয়োজক হতে লড়াইয়ে নামতে যাচ্ছে যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেন।

চলতি বছরে অনুষ্ঠিতব্য কাতার বিশ্বকাপের পর ২০২৬ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও মেক্সিকো মিলে আয়োজন করবে ২৩ তম ফুটবল বিশ্বকাপের আসর। ইতিমধ্যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে পরের বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ নির্বাচনের। তাতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ইউরোপ-আমেরিকার বেশকিছু দেশ।

যৌথভাবে নিলামে অংশ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ইউক্রেনও। পর্তুগাল ও স্পেনের সাথে মিলে একযোগে আয়োজক হওয়ার জন্য লড়বে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি। ইংলিশ গণমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, নিলামে অংশ নেয়ার জন্য ইতিমধ্যে দেশটির ফুটবল ফেডারেশনকে অনুমতি দিয়ে দিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জেলেনস্কি।

তবে কাজটা মোটেও সহজ হবে না ইউক্রেন, পর্তুগাল ও স্পেনের জন্য। কারণ ইতোমধ্যে আয়োজক হওয়ার নিলামে অংশ নিতে যৌথভাবে আবেদন জমা দিয়েছে উরুগুয়ে, আর্জেন্টিনা, প্যারাগুয়ে ও চিলি। যৌথভাবে আবেদন জমা দিয়েছে মিশর, গ্রিস আর সৌদি আরবও।

x

You May Also Like