১৭ কেজি মাছ নিয়ে মেহমান বাড়িতে হাজির যুবকদল, কেনো গেলো সেই বাড়িতে ? ভাইরাল ভিডিও !

বাসায় যখন কেউ বেড়াতে আসে সাধারণত তাদেরকেই মেহমান বলা হয়ে থাকে । মেহমান হলো বেড়াতে আসা ব্যাক্তিগন যারা আসে বেড়ায় আবার চলে যায় । মেহমানরা আসার সময় হাতে করে কিছু না কিছু নিয়ে আসে আর সেটা হতে পারে মিষ্টি,রসমালাই ফল ফলাদি ইত্যাদি ইত্যাদি আরো অনেক কিছু কিন্তু আজ আমরা শুনবো ভিন্নধর্মী এক মেহমান দের কথা ।

যারা কিনা কারো বাড়িতে বেড়াতে যায় এবং সেখানে সারে সতেরো কেজি ওজনের মাছ নিয়ে রান্না করে সবাইকে নিয়ে আনন্দ করে খায় এবং শেষে চলে যায় । আমরা মানুষ আর মানুষের মনুষত্ব প্রকাশ পায় তার কাজ কর্ম এবং গুনের মাধ্যমে । মানুষ মানুষের জন্য এটা সবাই জানি কিন্তু কয়জন একে অপরের জন্য থাকে মানুষের প্রতি ভালোবাসা আছে যার সেইতো প্রকৃত মানব ।

সম্প্রতি অনলাইন জুরে ভাইরাল হওয়ােএকটি ভিডিওতে দেখা যায় কিছু যুবকদল যারা কিনা একটি লোকের বাড়িতে অনেক বড় একটি মাছ নিয়ে যায় এবং সেটা রান্না করার সামগ্রী সহ আরো বাজার যা যা দরকার সবকিছু নিয়ে গিয়ে সেখানে রান্না করে খায় ।

মাছটি নিয়ে গিয়ে তারা সেখানে সবাই মিলে সেটা প্রথমে কা’টে কা’টা শেষ হলে সেটাকে ধুয়ে নেয় এবং যে বাড়িতে যায় সে বাড়ির এক ভাবীর সহায়তায় মাছটিকে রান্না করার কাজ সম্পন্ন করে সেই সময় বাড়ির এবং পাশের বাড়ির সকল বাচ্চা ভাবী এবং ছেলেরা সহ উপস্থিত ছিলো ।

রান্না শেষ হওয়ার পর তারা সেটাকে সার্ভ করে একটি ডিসে এবং সবাইকে বাড়ির উঠানে বিছানা করে বসতে দেওয়া হয় আর সেই মাছ এবং ভাত সবার পাতে পাতে খেতে দেওয়া হয় । সবাইকে দেওয়ার পর যিনি রান্না করেছেন সেই ভাবীর জন্য মাছের লেজটা নির্ধারন করলো সেই মেহমান দল ।

খাওয়া শেষ হলে তারা সবাই সেখান থেকে যে চাচার বাড়ি বেড়াতে গিয়েছিলো সেই চাচার হাতে কিছু টাকা দিয়ে চলে আসলো সেই মেহমান দল ।

এখন কথা হলো তারা কেনো এতো আয়োজন করলো হ্যা বন্ধুরা তারা গ্রামের কজন সেচ্ছাসেবকক দল যারা কিনা মানুষের উপকার করে বেরায় । তারা গ্রামের এক অসহায় চাচার কথা শুনে যার কিনা কোনো ভিটা নাই এবং সন্তানরা তাকে বুড়ো বয়সে কোনোরকম সাহায্য করেনা ।

সেই চাচা ভেন চালিয়ে তার সংসার চালায় । চাচার তিন ছেলে সবাই ভিন্ন ভিন্ন ভাবে বসবাস করে । চাচাকে সাহায্য করার জন্য এবং কিছুটা হাসি ফুটানোর জন্য সেই যুবকদলের এতোসব কান্ড ।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন ।

You May Also Like