দারুণ পদ্ধতি ব্যবহার করে মুহুর্তেই টিয়া পাখি ধরে নিল যুবক, ‍টিয়া পাখি ধরার এমন অভিনব পদ্ধতি ভাইরাল ভিডিও

টিয়া (যা সিট্টাসিনি হিসেবেও পরিচিত) ৩৭২ টি প্রজাতি ও ৮৬ টি গণে বিভক্ত পাখি, যারা সিট্টাসিফর্মিস বর্গের অন্তর্ভুক্ত । টিয়া উষ্ণ ও নিরক্ষীয় অঞ্চলের পাখি। সিট্টাসিফর্মিস বর্গটি তিনটি গোত্রে বিভক্ত: সিট্টাসিডি, ক্যাকাটুইডি, এবং স্ট্রিগোপোইডি। টিয়ারা প্রায় সমগ্র নিরক্ষীয় অঞ্চল জুড়ে বিস্তৃত, এদের কিছু প্রজাতি নাতিশীতোষ্ণ দক্ষিণ গোলার্ধে বসবাস করে।

দক্ষিণ আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ায় সবচেয়ে বেশি টিয়ার দেখা মেলে।পৃথিবীর সবচেয়ে রঙিন বৈচিত্র্যময় পাখিদের মধ্যে টিয়া পাখি অন্যতম। মানুষের অনুকরণে কথা বলার ক্ষমতা এই সুন্দর পাখিগুলোকে করেছে ভীষণ জনপ্রিয়।

এই বুদ্ধিমান পাখিদের বিভিন্ন প্রজাতির মধ্যে রয়েছে প্রচুর বৈচিত্র্যতা। তাই এদের সম্পর্কে অজানা ও চমকপ্রদ তথ্যেরও যেন কোনো শেষ নেই!টিয়া (Parrot) Psittaciformes বর্গের অতি পরিচিত পাখি।

এদের বড় মাথা ও বাঁকানো হুকের মতো ঠোঁট বৈশিষ্ট্যময়। এদের লেজ লম্বা। এরা মানুষের স্বর অনুকরণ করায় সক্ষম এবং এদের মধ্যে প্যারাকিট, লাভবার্ড ও বাজারিগার ও সেসঙ্গে অপেক্ষাকৃত বড় আকারের ম্যাকাউ, আমাজান টিয়া, কাকাতুয়া ইত্যাদি পাখি রয়েছে। এদের জিহবা বেলুনাকার ও মাংসল।

ফল ও বীজ খাওয়ার জন্য টিয়া ও এর স্বগোত্রীয়দের ঠোঁট মজবুত। বৃক্ষের শাখার ভিতর দিয়ে চলাচলের জন্য এরা কৌশলে এটিকে ব্যবহার করে। এদের পায়ের প্রথম ও চতুর্থ আঙুল পেছনমুখী। গাছে আরোহণের জন্য আঙুলের এক ধরনের অভিযোজন ঘটে থাকবে। এসব আঙুলের সাহায্যে এরা হাতের অনুরূপ খাদ্যবস্ত্তকে ধরে নিয়ে মুখে পুরতে পারে, যা অন্য কোনো প্রজাতির পাখিতে দেখা যায় না।

সম্প্রতি সোস্যাল মিডিয়ায় এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটি সোস্যাল মিডিয়ায় আসার সাথে সাথে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে। ভাইরাল ভিডিওটি টি আপনারা নিচে গেলেই দেখতে পাবেন।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন.

You May Also Like