বনের ভিতর মনের সুখে আস্ত মুরগি ধরে রান্না করে খেয়ে নিল বালকটি, ভিডিওটি তুমুল ভাইরাল

মুরগি বিশ্বের সবচেয়ে সাধারণ ধরণের পোল্ট্রি। মুরগির তুলনায় তুলনামূলক স্বাচ্ছন্দ্য এবং স্বল্প খরচের কারণে- গবাদি পশু বা হোগের মতো স্তন্যপায়ী প্রাণীর তুলনায় মুরগির মাংস এবং মুরগির ডিম প্রচুর রান্নায় প্রচলিত রয়েছে।

মুরগি বেকিং, গ্রিলিং, বারবিকিউনিং, ফ্রাইং এবং ফুটন্ত সহ বিস্তৃত উপায়ে প্রস্তুত করা যেতে পারে।মুরগি গৃহপালিত পাখিদের মধ্যে অন্যতম। এর মাংস ও ডিম প্রোটিনের অন্যতম উৎস। এরা ১০-১২ ফুটের বেশি উড়তে পারেনা। একবারে ১২-২০ টি ডিম পাড়ে ও তা দিয়ে বাচ্চা ফুটায়। যার জীবনকাল ৫-১০ বছর।

২০১৮ সালের হিসাবে সারা পৃথিবীতে ২৩.৭ বিলিয়ন তথা ২৩৭০ কোটি মুরগি ছিলো। [১]। পুর্বে ২০১১ সালে ১৯ কোটিরও বেশি ছিল। অন্য সব পাখির চাইতে মুরগির সংখ্যা বেশি।
এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকার মতে বন্য মুরগিকে পোষ মানিয়ে গৃহপালিত করার কাজটা প্রথম হয়েছিলো ভারতীয় উপমহাদেশে। তবে শুরুতে তা করা হয়েছিলো খাদ্যের জন্য না, বরং মোরগ লড়াই এর জন্য।

ভারতীয় উপমহাদেশ থেকে মুরগিপালন ছড়িয়ে পড়ে পশ্চিম এশিয়ার পারস্য রাজ্য লিডিয়াতে। খ্রিস্টপূর্ব ৫ম শতকে গ্রিসে সেখান থেকে মুরগি আমদানি করা হয়। মিশরে মুরগিপালন শুরু হয় সেখানকার ১৮শ রাজবংশের সময়কালে,

আর ৩য় তুতমোসের সময়ের ইতিহাস অনুসারে এই প্রথা এসেছিলো সিরিয়া ও ব্যাবিলন হয়ে। আসিল, ফাউমি,রোড আইল্যান্ড রে্‌,সোনালী,হোয়াইট লেগহর্ন ইত্যাদি উল্লেখযগ্য। চট্টগ্রাম এলাকায় মুরগি নামে অবিহিত করা হয়মাংসের মধ্যে মুরগির মাংস সব চাইতে সুস্বাদু এবং সব চাইতে বেশি স্বাস্থ সম্মত।

নিয়মিতই সবাই মুরগির মাংস খেয়ে থাকি। আজকে আমরা একটি সুস্বাদু মুরগির মাংস রান্নার রেসিপি জানাবো। এটি পড়ে আরো মজার কিছু আইটেম রান্না করতে পারবেন। খাবারের মাঝে মাঝে বৈচিত্র আনার জন্য এ পোস্টটি আপনার জন্য অনেক কাজে লাগবে।

সম্প্রতি সোস্যাল মিডিয়ায় এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটি সোস্যাল মিডিয়ায় আসার সাথে সাথে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে। ভাইরাল ভিডিওটি টি আপনারা নিচে গেলেই দেখতে পাবেন।
ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন.

You May Also Like