মাত্র পাওয়া : বাংলাদেশ দলে অনিশ্চিত হলেন সাকিব আল হাসান

বিশ্বকাপ প্রস্তুতিকে সামনে রেখে দেশের বাইরে ক্যাম্প করার কথা ভাবছিল বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট। সেই পরিকল্পনা থেকেই দুবাইয়ে প্রস্তুতি ক্যাম্প আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি।

বিশ্বকাপ এবং ট্রাই নেশনের জন্য ১৫ সদস্যের দল গতকালই ঘোষণা করা হয়েছে, সাথে ৪ জনকে রাখা হয়েছে স্ট্যান্ডবাই হিসেবে। সৌম্য সরকার, রিশাদ হোসেন, শরিফুল ইসলাম এবং শেখ মেহেদী হাসান আছেন স্ট্যান্ডবাই এর তালিকায়। দুবাইয়ের ক্যাম্পে দলের মূল সদস্যদের সাথে স্ট্যান্ডাবাইরাও যাবেন বলে জানিয়েছেন বিসিবির সিইও নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন।

কারা প্রস্তুতি ক্যাম্পে থাকবেন এই প্রসঙ্গে নিজামউদ্দীন জানান, ‘যে মূল দল ঘোষণা করা হয়েছে, এর বাইরে স্ট্যান্ডবাই যারা- এখন পর্যন্ত পরিকল্পনা হচ্ছে মূল দল এবং স্ট্যান্ডবাইয়ে থাকা ক্রিকেটাররা যাবে।’

তবে সকলে যেতে পারলেও অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের যাওয়াটা এখনও নিশ্চিত নয়। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) খেলার উদ্দেশ্যে বর্তমানে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অবস্থান করছেন সাকিব। এবিষয়ে বোর্ডের কাছ থেকে ছাড়পত্র (এনওসি) নিয়েই দেশ ছেড়েছেন তিনি। এখন ক্যাম্পের জন্য তাকে আবার ফিরিয়ে না আনার সম্ভাবনাই বেশি। সাকিব প্রসঙ্গে নিজামউদ্দীন জানান, ‘সাকিব আল হাসানকে আগেই একটি ঘরোয়া টুর্নামেন্টের জন্য এনওসি দেওয়া আছে। ওই ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। টিম ম্যানেজমেন্টই সিদ্ধান্ত নেবে, ওই সময়ে তাকে ফিরিয়ে আনার কতটুকু দরকার আছে।’

এছাড়া কোচিং স্টাফের সকলেই প্রস্তুতি ক্যাম্পে থাকবেন বলে আশা করছেন নিজামউদ্দীন, ‘আশা করছি (কোচদের মধ্যে) বেশিরভাগই থাকবে। যেহেতু হুট করে এই পরিকল্পনা, সবার আরও কিছু নিজেদের প্রস্তুতির ব্যাপার ছিল। তখন নিউজিল্যান্ডে কয়েকজনের যোগ দেওয়ার কথা ছিল। এখন আশা করছি দুবাইয়ে যাতে জয়েন করেন কোচিং স্টাফের সদস্যরা।’

দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে আগামী ২২ তারিখ দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ দল। আমিরাতে গিয়ে কয়েকটি অনুশীলন পর্ব শেষে ২৫ এবং ২৭ সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে দুইটি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে টাইগাররা। দেশে ফিরবে ২৮ সেপ্টেম্বর।

You May Also Like