মাহমুদুল্লাহকে পাপনের রিকুয়েষ্ট; সরাসরি না করে দিলেন মাহমুদুল্লাহ!

জাতীয় দল থেকে কোনো ক্রিকেটারকে বাদ দেওয়ার আগে কারণ ব্যাখ্যা করার দৃষ্টান্ত খুব বেশি নেই। বাদ দেওয়ার আগে যে ক’জন ক্রিকেটারের সঙ্গে বিসিবি কর্মকর্তারা বসেছিলেন তাঁদের অন্যতম হলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

২০২০ সালে মাশরাফিকে যেমন প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল ওয়ানডে ক্রিকেট থেকে অবসরের সুযোগ করে দিতে চায় বোর্ড, তেমনি মাহমুদউল্লাহকেও অনুরূপ প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল মঙ্গলবার।

বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস ও প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু পরশু রাতে ঢাকার একটি রেস্তোরাঁয় মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে বসেছিলেন বোর্ডের পরিকল্পনা জানাতে।

সাবেক এ টি২০ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাক রিয়াদকে জালাল ইউনুস বলেছিলেন, নিউজিল্যান্ডে প্রথম ম্যাচ খেলে অবসর নিতে চাইলে সুযোগ করে দেওয়া হবে। মাশরাফির মতো মাহমুদউল্লাহও বোর্ডের এ প্রস্তাবে রাজি হননি।

মাহমুদউল্লাহর বাদ পড়া প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে মিনহাজুল আবেদীন বলেছেন, ‘মাহমুদউল্লাহর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলছি, সে আমাদের অনেক ভালো ভালো খেলা উপহার দিয়েছে।

আমাদের বর্তমান যে টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট, তিনি এক বছরের যে পরিকল্পনা আমাদের দিয়েছেন, সেটা মাথায় রেখে আমরা এগোচ্ছি। সেই অনুযায়ী টিম ম্যানেজমেন্টের সবার সঙ্গে আলোচনা করে সকলের সম্মতিতে মাহমুদউল্লাহকে বাইরে রাখা হয়েছে।’

You May Also Like