মাহমুদউল্লাহকে ছাড়াই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল ঘোষণা; একাদশে বড় চমক

অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। দলে নেই মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ডাক পেয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ১৫ জনের স্কোয়াড ছাড়াও আছেন ৪ জন স্ট্যান্ডবাই।

বুধবার (১৪ সেপ্টম্বর) মিরপুরের শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। বিশ্বকাপে দলের নেতৃত্ব দেবেন সাকিব আল হাসান; তা আগেই জানা ছিল। তার ডেপুটি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন নুরুল হাসান সোহান।

অনেক দিন থেকেই ছন্দে না থাকায় মাহমুদউল্লাহকে বিবেচনা করা হয়নি বিশ্বকাপ দলে। যদিও বাউন্সি উইকেটে ভালো খেলতে পারার সুনামও রয়েছে তার। অস্ট্রেলিয়ার মাঠে কখনো টি-টোয়েন্টি না খেললেও পাঁচটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ৩৫.২০ গড়ে করেছেন ১৭৬ রান। রয়েছে একটি সেঞ্চুরিও। প্রায় একই ধরণের কন্ডিশনের নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড, আয়ারল্যান্ডেও তার পারফরম্যান্স ঈর্ষনীয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দলে নেওয়া হয়নি সাবেক অধিনায়ককে।

ইনজুরি কাটিয়ে প্রত্যাশিতভাবে ফিরেছেন লিটন কুমার দাস, নুরুল হাসান সোহান, হাসান মাহমুদ ও ইয়াসির আলী রাব্বি। জিম্বাবুয়ে সিরিজে সোহান এবং লিটন ইনজুরিতে পড়েছিলেন। যে কারণে খেলতে পারেননি এশিয়া কাপেও। এশিয়া কাপে যাওয়া আগে অনুশীলনে চোট পেয়েছিলেন হাসান। এশিয়া কাপে খেলতে পারেননি তিনিও। তবে ফিটনেস ফিরে পাওয়ায় ফিরেছেন তারা।

ইয়াসির আলী অবশ্য গত দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ইনজুরিতে পড়েন। প্রায় ৫ মাস পর দলে ফিরলেন এই ব্যাটার। নাজমুল হোসেন শান্তর ফেরাটা কিছুটা চমকই বটে। কারণ সাম্প্রতিক সময়ে বলার মতো তেমন কিছুই করেননি তিনি। তারপরও তার উপরই আস্থা রেখেছে বাংলাদেশ। ওপেনার হিসেবে আলোচনায় ছিলেন সৌম্য সরকার। কিন্তু সুযোগ মিলেনি তার। তবে স্ট্যান্ড বাই হিসেবে রাখা হয়েছে তাকে।

এছাড়া মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে বাদ পড়েছেন শেখ মাহাদি হাসান। এশিয়া কাপে প্রত্যাশা অনুযায়ী খেলতে পারেননি তিনি। তাকে রাখা হয়েছে স্ট্যান্ড বাই হিসেবে। তার সঙ্গে স্ট্যান্ড বাই হিসেবে আছেন শরিফুল ইসলাম ও রিশাদ হোসেন।

২৪ অক্টোবর থেকে শুরু হবে টাইগারদের বিশ্বকাপ মিশন। বাছাই পর্বের ‘এ’ গ্রুপ থেকে পেরিয়ে আসা রানার্সআপ দলের মুখোমুখি হবে সাকিবের দল। ২৭ অক্টোবর দ্বিতীয় ম্যাচে প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। ৩০ অক্টোবর বাংলাদেশ খেলবে ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়নের বিপক্ষে। শেষ দুটি ম্যাচ খেলবে ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। ২ নভেম্বর ভারত ও ৬ নভেম্বর পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে টাইগাররা।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল:
সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, আফিফ হোসেন, মোসাাদ্দেক হোসেন, লিটন দান, ইয়াসির আলী রাব্বি, নুরুল হাসান সোহান, মোস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, তাসকিন হোসেন, ইবাদত হোসেন, হাসান মাহমুদ, নাসুম আহমেদ, নাজমুল হাসানশান্ত।

স্ট্যান্ডবাই: শরিফুল, রিশাদ, শেখ মেহেদী, সৌম্য।

You May Also Like