দারুন কায়দায় পাকা কুমড়ো দিয়ে টোপ বানিয়ে ঢোবা থেকে মাগুর মাছ ধরল যুবক, তুমুল ভাইরাল সেই ভিডিও…

গ্রাম্য পরিবেশে মাছ ধরতে কার না ভালো লাগে। যদি হাটতে গিয়ে মাছ পাওয়া যায় তখন সে ব্যাপারটা আরো অদ্ভুত হয়ে যায়। ঠিক এমনই ঘটনা ঘটে গ্রামের তিনটি কিশোরের সাথে। কিশোরের সাথে সাথে সাথে সেখানে গিয়ে তারা দেখতে পায় অনেক অনেক বড় বড় মাছের ঝাঁক। গ্রামের এই পরিবেশ গুলো দেখতে খুবই স্বাভাবিক ।কিন্তু এত এত মাছ একসাথে দেখার অনেক অস্বাভাবিক। গ্রামের মধ্যে অনেক অনেক দোয়া থাকে সে ডোবায় অনেক প্রকার বড়-ছোট অনেক মাছ দেখতে পাওয়া যায়।

কিন্তু একটি গ্রামের কিশোর তারা এমন একটি ডোবা যায় যেখানে অনেক অনেক বড় বড় মাগুর মাছ দেখা যায়। সেই বড় বড় মাছের লোভ যেন কেউ সামলাতে পারবে না। ঠিক তেমনি এই বড় বড় মাগুর মাছ ধরার কায়দা একটি ভিডিও করে ফেলেন সেই গ্রামে একজন যুবক। ভিডিওটি ইন্টারনেটে আপলোড করে দেন।সেই ভিডিও ধারণ করে ইন্টারনেটে দিলে এটি ইন্টারনেটের বদৌলতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল ভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

রাতারাতি সে ধারণকৃত ভিডিওটি হয়ে যায় ভাইরাল। সাথে সাথে ভাইরাল হয়ে যায় সে তিনটি যুবক যারা এই ডোবায় মাছ ধরেছেন। তাদের মাছ ধরার পদ্ধতি ছিল অনেক অভাবনীয়। তারা ছোট হলে কি হবে তারা বড়দের থেকে ভালো কায়দায় মাছগুলো শিকার করেছে। কুমড়ো দিয়ে তৈরি টোপ দিয়ে এমন বড় বড় মাছ ধরার কায়দা ভাবাচ্ছে সকল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের। তারা সবাই এভাবে তাদের মাছ ধরার পদ্ধতি দেখে সকলে হচ্ছে চমকপ্রদ। কুমড়ো দিয়ে জাল তৈরি করে মাছ ধরতে দেখে অনেকটাই চমকে যাচ্ছে নেটিজেনরা।

তারা অবাক হয়ে তাদের প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে এই বিষয়টির উপর। তারা কিভাবে এমন কায়দায় মাছ ধরতে পারে । কুমড়ো দিয়ে মাছের টোপ কিভাবে বানায় তা অনেকের কাছে প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেকে ভাবছে তারা কিভাবে করছে এসব কায়দায় করে এই বড় বড় মাগুর মাছ ধরতে পারে।কিভাবে এই কায়দা করে কুমড়ো দিয়ে টব বানিয়ে বড় বড় মাগুর মাছ ধরতে পারছে তারা। সবাই বিস্মিত হয়ে আছে তাদের এই কান্ড কারখানা দেখে। বিস্মিত সবার একই প্রশ্ন তারা কিভাবে পারছে কুমড়ো দিয়ে টোপ বানিয়ে এভাবে মাছ ধরতে।

কুমড়ো দিয়ে মাছ ধরার টোপ বানানো যে অসম্ভব কিন্তু সে অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখিয়েছে সেই যুবক। কুমড়ো দিয়ে মাছের টক বানিয়ে শুধু মাছ নয় বড় বড় মাগুর মাছ ধরছে এই কুমড়ো টোপ দিয়ে। একটি গ্রামের যুবকগুলো তারা বয়সে খুব ছোট কিন্তু তাদের কাজগুলো যেন বড়দের কেও হার মানায় বারবার। তারা এমন ভাবে, এমন কায়দায় মাছ ধরেছে যে বড়রা হতবাক যে তারা কিভাবে একাই দে মাছ ধরতে পারছে তাদের বুদ্ধি যেন অতুলনীয় এতটুকু বাচ্চার মাথায় এত বুদ্ধি কোথা থেকে আসে।

তা এখনো সবাইকে ভাবিয়ে ভেবে কূল পাচ্ছে না তারা ।এই কায়দা করে ডোবা থেকে তারা বড় বড় মাছ কিভাবে শিকার করছে সবাই তাদের এই ঘটনা দেখে হতভম্ব আবার কেউ উৎসাহিত করেছে তাদের এই কাজ কে। তারা ডোবার মধ্যে মাটি দিয়ে মাছের জন্য ফাঁদ পাতে । সেই ফাঁদে আটকে পড়ে অনেক বড় বড় মাছ ।সে বড় বড় মাগুর মাছ গুলো কে কুমড়ো দিয়ে সে বালক গুলো শিকার করে । কিন্তু তাদের কুমড়ো দিয়ে তৈরি এই বিশেষ ফাঁদ অনেক বড় মানুষ তৈরি করতে অক্ষম।

তারা বিশেষ করে এইভাবে কুমড়ো দিয়ে ফাঁদটি তৈরি করে। তারা তাদের বুদ্ধি দিয়ে কুমড়ো দিয়ে বিশেষ ভাবে ফাঁদ বানানোর কাজ করে দেয় ।কারণ ফাঁদ যদি ঠিক না হয় মাছ কিভাবে ধরা দিবে ।মাছ ঠিকভাবে ধরার ক্ষেত্রেও ফাঁদ সঠিকভাবে তৈরি করতে হয়। তাদের কুমড়ো দিয়ে মাছ ধরা দেখে অনেক জেলে ও যারা মাছ ধরার কাজে নিয়োজিত আছে তারা ও বিস্মিত হয়েছে ।তারা কিভাবে এত বড় বড় মাছ ধরছে ছোট যুবক মানুষ হয়েও। ছোটরাও যে ভালো কাজ করতে পারে তাই প্রমাণ করলেন দিল এই যুবুকেরা।

বিস্তারিত ভিডিওতে দেখুনঃ
https://youtu.be/XDNeNPoUttI

You May Also Like