আফগান ক্রিকেটারদের ‘বেয়াদব’ বলে চরম অপমান করলেন শোয়েব!

লম্বা দৌড় শেষে যেভাবে তেড়েফুঁড়ে এসে বলটি করতেন, গতি দেখে অনেকেরই মনে হতো, বল নয়, আগুনের গোলা ছুড়ে মারছেন আফগান এই বোলার। ক্রিকেট মাঠে অসংখ্যবার ব্যাটসম্যানের দিকে বলের গোলা ছুড়ে মারা শোয়েব আখতার এবার কথার গোলা ছুড়লেন আফগানদের দিকে।

গতকাল বুধবার রাতে শারজায় পাকিস্তান-আফগানিস্তান ম্যাচে আফগান ক্রিকেটারদের আচরণ এবং খেলা শেষে গ্যালারিতে তাদের সমর্থকদের ভাঙচুরের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শোয়েব আখতার। পাকিস্তানের সাবেক ফাস্ট বোলার এতেই ক্ষান্ত হননি, কথা-কাটাকাটিতে জড়িয়েছেন আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক প্রধান নির্বাহীর সঙ্গে।

সুপার ফোরে গতকাল পাকিস্তান-আফগানিস্তান ম্যাচটিতে মাঠে উত্তেজনা সৃষ্টি হয় ১৯তম ওভারে। পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান আসিফ আলীকে আউট করার পর আফগান পেসার ফরিদ আহমেদ কিছু একটা বলেছিলেন। প্যাভিলিয়নমুখী আসিফ তখন ঘুরে দাঁড়িয়ে ব্যাট উঁচিয়ে ফরিদের দিকে এগিয়ে যান।

ঝামেলা খুব বেশি দূর গড়ায়নি আম্পায়ার ও আফগানিস্তানের অন্য খেলোয়াড়রা এসে হস্তক্ষেপ করায়। তবে মাঠের ঝামেলা সেখানেই থেমে গেলেও গ্যালারিতে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠতে দেখা যায় দুই দলের সমর্থকদের।

ম্যাচ শেষে আফগান সমর্থকরা তর্কে জড়ান পাকিস্তানের সমর্থকদের সঙ্গে। একটা পর্যায়ে সেটা রূপ নেয় মারামারি আর ভাঙচুরে। এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, বেশ কয়েকজন আফগান দর্শক গ্যালারির চেয়ার ভাঙচুর করছেন, একজন পাকিস্তান–সমর্থককে পেটাতেও দেখা যায়।

এসব নিয়ে খেলা শেষে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে কথা বলেন শোয়েব। প্রতিবেশী দেশটির সমালোচনা করে রীতিমতো একহাত নেন তিনি, ‘জাতি হিসেবে আমরা সব সময়ই আফগানিস্তানের কঠিন সময়ে পাশে দাঁড়িয়েছি। আসিফ আলী আউট হওয়ার পর এটা তারা কী করল?

কে তাকে ধাক্কা দিল, এমনকি গালিও দিল? তোমরা ক্রিকেট খেলো। নিজেদের আবেগ দেখাও। এ ধরনের ঔদ্ধত্য দেখিয়ো না। এ জন্যই স্রষ্টা তোমাদের শাস্তি দিচ্ছেন। আর এ কারণেই স্রষ্টা এক পাঠানের (নাসিম শাহ) ছক্কায় আরেক পাঠানকে হারিয়ে দিয়েছেন। তোমরা লজ্জিত হয়েছ এবং কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছেড়েছ।’

আফগানিস্তান দলের আচরণ ঠিক হয়নি বোঝাতে গিয়ে ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্কের প্রসঙ্গও এনেছেন শোয়েব। আফগানরা ভালো ক্রিকেট দল উল্লেখ করে শোয়েব বলেন, ‘আমরা তো ভারতীয়দের সঙ্গে বেশ ভালোভাবে মিশি। আর তোমরা কী করছ? আমরা তোমাদের ভাই বলে মনে করি। প্রতিবেশী দেশ, তোমাদের আমরা ভালোবাসি, খেয়াল রাখি। আর সেই তোমরা এমন বেয়াদবি করছ? এটা মানা যায় না।’ইউটিউবের পাশাপাশি টুইটারেও আফগানিস্তান নিয়ে সরব হয়েছেন শোয়েব।

You May Also Like