পাইপ কেটে বানানো হল মাছ ধরার টোপ, পুকুরে পেতে টান দিতেই একসাথে অনেক মাছ ধরা পড়ল, যুবকের দারুন পদ্ধতিতে মাছ ধরার ভিডিওটি তুমুল ভাইরাল..

পাইপ কেটে বানানো হল মাছ ধরার টোপ, পুকুরে পেতে টান দিতেই একসাথে অনেক মাছ ধরা পড়ল, যুবকের দারুন পদ্ধতিতে মাছ ধরার ভিডিওটি তুমুল ভাইরাল..

আমরা ভাতে মাছে বাঙ্গালী, আর আমরা বাঙ্গালীরা মাছ খেতে খুব পছন্দ করি, মাছ খাওয়ার জন্য আমরা বিভিন্ন ভাবে মাছ শিকার করে থাকি। এবং মাছ শিকার করার জন্য আমরা যে কৌশল ব্যবহার করি তার প্রত্যেকটি একটি অন্যটির থেকে অন্যতম হয়, মাছ আমাদের দেহের আমিষের চাহিদা মেটায়, তাই আমাদের আমিষের ঘাটতি পূরণ করার জন্য আমরা মাছ খেয়ে থাকি। আমিষের ঘাটতি পূরণ করার জন্য আমরা বাজার থেকে মাছ কিনে আনি অথবা বিভিন্ন কৌশল ব্যবহার করে আমরা নিজেরাই মাছ শিকার করে থাকি।

গ্রামে নদী-নালাতে প্রচুর পরিমাণে মাছ থাকে, আর এই মাছ শিকার করার জন্য গ্রাম্য ছেলে-মেয়েরা বিভিন্ন ধরনের নিত্যনতুন কৌশল আবিষ্কার করে। তাদের এই কৌশলগুলো এতটা কার্যকর হয় যে, অল্প সময় অনেক গুলো মাছ ধরা যায়। তারা অল্প সময়ে অল্প খরচে অনেক ধরনের মাছ ধরে ফেলে যা সত্যিই অবিশ্বাস্য কর। আর মাছ নিয়ে ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওতে দেখা যায়, একটি কিশোর ছেলে তার নিজস্ব কৌশল ব্যবহার করে একসাথে ৩ থেকে ৪ কেজি মাছ ধরতে সক্ষম হয়েছে।

আজ আমরা আপনাদের কাছে এই ভিডিও সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব, এবং কিভাবে ফাদ তৈরি করেছে সেই সম্পর্কে আপনাদের জানাবো। গ্রামের ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা পুকুর থেকে অসংখ্য মাছ শিকার করে থাকে। আর তাদের এ কৌশল গুলো হয় একদম অন্যরকম। তারা এ ধরনের কৌশল কোন প্রতিষ্ঠান থেকে শিখে না। তারা তাদের নিজস্ব বুদ্ধিমত্তাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ধরনের ফাঁদ তৈরি করে। আর এই ফাদটি তৈরি করার জন্য যা যা প্রয়োজন তা হচ্ছে-

একটি মোটা পাইপ,সিমেন্টের তৈরি করা একটি পাথরের পিন্ডের,মত দড়ি,মাছ ধরার জালের ছোট টুক
রা,ভাত,কুড়া-ভুসি,কাঁকড়া,কেঁচো,শামুক ইত্যাদি।

প্রথমে একটি লম্বা পাইপ ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে। এরপর একটি সিমেন্টের তৈরি পাথর নিতে হবে। পাথরটি যাতে পাইপের মধ্য ডুকে যায়। এরপর সে পাথরের যেকোনো এক পাশে একটি পেরেক গেঁথে দিয়ে হবে। পেরেক টি বাকা করে দিয়ে আংটা মত করে নিতে হবে। ওই আংটার অংশে রশি বেধে দিতে হবে। এখন মাছের খাবার তৈরি করে নেয়া যাক, মাছের খাবার তৈরি করার জন্য একটি পাত্রে কুড়া-ভুসি, ভাত নিয়ে ভালো করে একটি লাঠি দিয়ে চটকে নিতে হবে।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন
এরপর একটি কাঁকড়া টুকরো করে দিয়ে ভালো করে চটকে নিতে হবে। সাথে কিছু শামুক, কেঁচো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। সবগুলো উপকরণ একসাথে নিয়ে একটি জালের টুকরোতে খাবার গুলো ভালো করে দিয়ে পুটলির মত করে বেঁধে নিতে হবে। সিমেন্টের পাথরের অংশে বেঁধে দেওয়া রশির সাথে পুটলিটি ভালো করে বেঁধে দিতে হবে। এখন যেখানে আপনি ফাদ পাতবেন। সেখানে গিয়ে আড়াআড়িভাবে দুটি লাঠি বা বাশ ভালো করে মাটির সাথে গেঁথে দিতে হবে,দেওয়ার পর মধ্যখানে পাইপের অংশটি রেখে।

পাইপের ভিতর পাথর এবং খাবার দিয়ে দিতে হবে। ১২ ঘণ্টা অপেক্ষা করার পর যখন ছেলেটি সিমেন্টের পাথরের এর অংশের লাগানো রশি ধরে টানে তখন প্রায় একসাথে ৩ থেকে ৪ কেজি মাছ ধরা পড়ল। এরপর ছেলেটি আবার সেই একই রকমভাবে ফাদটি পেতে রাখল। চারপাশে এবং ভিতরে আবার খাবার দিল এভাবে আরো এক থেকে দুই ঘণ্টা অপেক্ষা করার পর আরও এক থেকে দুই কেজি মাছ পাওয়া পেল। আপনারা যদি এই ধরনের ফাদ বানিয়ে মাছ ধরতে চান তাহলে আমাদের লিংকে গিয়ে ভিডিও দেখে নিতে পারেন।

You May Also Like

About the Author: