১টি মাত্র কারনে কপাল পুড়লো বিসিবির!

নানা নাটকীয়তার পর অবশেষে এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। তবে আয়োজক দেশ হিসেবে থাকবে শ্রীলংকা। বুধবার (২৭ জুলাই) এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) এক বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। মূলত শ্রীলঙ্কায় চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্যই সেখান থেকে সরিয়ে নেওয়া হলো বহুজাতিক এই টুর্নামেন্ট।

আগের নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী ২৭ আগস্ট থেকে ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এশিয়া কাপ-২০২২ অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে ৬টি দেশ অংশ নিবে। তবে আয়োজক দেশের তালিকায় আরব আমিরাতের পরেই ছিল বাংলাদেশের নাম। তবে বেশ কয়েকটি কারণে আয়োজক দেশ হতে পারেনি বাংলাদেশ।

মূলত বৃষ্টি এবং কয়েকটি কারণে আয়োজক দেশ হতে পারেনি বাংলাদেশ। আগস্ট এবং সেপ্টেম্বরের প্রচুর বৃষ্টি হয় এই উপমহাদেশে। সেই সাথে এশিয়া কাপ যদি বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হয় তাহলে আয়োজক দেশ থাকবে না শ্রীলঙ্কা।

এ বিষয়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের প্রেসিডেন্ট শাম্মি সিলভা বলেন, “আসলে আমরা চাচ্ছিলাম আমাদের প্রতিবেশি দেশগুলো নিয়ে আমাদের মাটিতেই এশিয়া কাপ আয়োজন করতে। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে এসিসি শ্রীলঙ্কা থেকে আরব আমিরাতে এশিয়া কাপ স্থানান্তরের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেটার প্রতি আমাদের পূর্ণ সমর্থন আছে এবং আমরা এসিসির পাশে আছি। এশিয়া কাপকে সফল করতে এসিসিকে আমরা সব ধরনের সহযোগিতা করবো।”

আরব আমিরাতে এশিয়া কাপের ঘোষণা দিয়ে এসিসির প্রেসিডেন্ট জয় শাহ বলেন, “শ্রীলঙ্কায় টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য সব ধরনের চেষ্টা করেছি। নতুন সিদ্ধান্তটা আমরা অনেক চিন্তাভাবনা করে নিয়েছি। এবারের আসর আয়োজিত হবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে। তবে শ্রীলঙ্কার স্বাগতিক স্বত্ব ঠিকই বহাল থাকবে। এ আসরটা এশিয়ার দেশগুলোর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, এর মাধ্যমে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হয়ে যাবে।”

You May Also Like

About the Author: