দুই জন ক্রিকেটারকে আট বছরের নিষেধাজ্ঞা দিলো আইসিসি

২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচে পাতানোর অভিযোগ উঠেছিল সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুই ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে। আইসিরি দুর্নীতি দমন কমিশন লম্বা সময় ধরে তদন্ত চালিয়ে দুই ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা খুঁজে পায়। যে জন্য মোহাম্মদ নাভেদ এবং শাইমান আনোয়ারকে ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে।

২০১৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত এই ৬ বছর নাভেদ ও শাইমান আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের। দুজনই দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। পেস বোলার মোহাম্মদ নাভেদ ছিলেন অধিনায়ক আর শাইমান ছিলেন সহ-অধিনায়ক।

দুইজনকে শাস্তি দেয়ার ব্যাপারে আইসিসি এক বিবৃতিতে জানায়, ‘মোহাম্মদ নাভিদ এবং শাইমান আনোয়ার সর্বোচ্চ পর্যায়ের ক্রিকেটে সংযুক্ত আরব আমিরাতের হয়ে খেলেছেন। নাভেদ দলের অধিনায়কত্ব করার সঙ্গে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারিও। শাইমান দলের ওপেনার ব্যাটসম্যান। জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন, জুয়াড়িদের ব্যাপারে সব জানেনও। এরপরও ওরা যে পাতানোর সঙ্গে জড়িত হয়েছে সেটা আরব আমিরাতের ক্রিকেট এবং তাদের সতীর্থদের প্রতি বিশ্বাস ঘাতকতার সামিল। দুইজনকে এই শাস্তি দেয়ার মাধ্যমে অন্যরাও সতর্ক হবে।’

আইসিসি’র দেয়া এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ক্রিকেট বোর্ড বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‌‌ক্রিকেটে দূর্নীতির কোনো স্থান নেই। আইসিসির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই আমরা।’

৩৩ বছর বয়সী নাভেদ ৩৯ একদিনের ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে রয়েছে ৫৩টি উইকেট। ৩১ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নেন ৩১টি উইকেট। শাইমান আনোয়ার ৪১ ওয়ানডেতে ১ সেঞ্চুরি আর ১১ ফিফটিতে করেছেন ১ হাজার ২১৯ রান। ৩২ টি-টোয়েন্টিতে ১ সেঞ্চুরি ও ৬ ফিফটিতে করেছেন ৯৭১ রান।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment