টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে যে রেকর্ড শুধুই বাংলাদেশের দখলে

২০০০ সালে টেস্ট ক্রিকেট এ যাত্রা শুরু করার পর থেকে কেটে গেছে ২২ বছর। এই দীর্ঘ সময়ে দল হিসেবে নিজেদের সেরাদের কাতারে নিয়ে যেতে পারেনি কখনো। রাংকিং এ ৯ আর ১০ নম্বর ছাড়া যে আরও কিছু ঘর আছে তা যেন ভুলেই গেছে বাংলাদেশের টাইগাররা। এবারও সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখে আরও একটি লজ্জার রেকর্ড করেই ফেললো বাংলাদেশ।

অ্যান্টিগার মতো সেন্ট লুসিয়াতেও বড় হারের শিকার হলো বাংলাদেশ। টেস্টের চতুর্থ দিনেই সাকিববাহিনী হেরেছে ১০ উইকেটে বিশাল ব্যবধানে। টেস্ট ক্রিকেটে এটি বাংলাদেশের শততম পরাজয়। বাংলাদেশের চেয়ে এতো কম ম্যাচ খেলে শততম হার দেখেনি কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশ। এমনকি ধুঁকতে থাকা জিম্বাবুয়েও বাংলাদেশের এই লজ্জার রেকর্ডটি ভাঙতে পারবে না।

মাত্র ১৩৪ টেস্ট খেলেই ১০০ হারের তিক্ত স্বাদ পেয়েছে টাইগাররা। সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে ১০০ হারের রেকর্ডটি এতোদিন ছিল নিউজিল্যান্ডের দখলে। ১০০ টেস্ট হারতে কিউইদের লেগেছিল ২৪১টি টেস্ট। শ্রীলঙ্কা শততম হারের স্বাদ পেয়েছিল নিজেদের ২৬৬তম টেস্টে এসে।শততম হারের মুখ দেখতে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলতে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার। ৩৭৪তম টেস্টে অজিরা পেয়েছিল শততম হারের স্বাদ। এছাড়া ১০০টি টেস্ট হারতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩৬৮, পাকিস্তানের ৩৫৭, ইংল্যান্ডের ৩৪১, ভারতের ৩০৩ ও দক্ষিণ আফ্রিকার ২৭৯ ম্যাচ লেগেছিল।

টেস্টে এখনো ১০০ হারের স্বাদ পায়নি জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের চেয়ে তাদেরও জয়-পরাজয়ের হার ভালো। এখন পর্যন্ত ১১৭ টেস্ট খেলে জিম্বাবুয়ে হেরেছে ৭৫টি, জিতেছে ১৩ ম্যাচে। অর্থাৎ সামনের ২৫ টেস্টের সবগুলো হারলেও পরাজয়ের সেঞ্চুরি করতে জিম্বাবুয়ের লাগবে ১৪২ ম্যাচ।

আর সবচেয়ে বাজে ব্যাপার হলো বাংলাদেশের হারের ধরনগুলো। বেশির ভাগ টেস্টেই দলটি হেরেছে ইনিংস ব্যাবধানে। টেস্ট যে ৫ দিনের খেলা সেটাই হয়তো ভুলে যান বাংলাদেশ দলের খেলোয়ারেরা।

x

You May Also Like