পদ্মা সেতু উদ্বোধনের আগেই বোমা ফাটালেন তামিম ইকবাল!

আগামীকাল শনিবার শুভ উদ্বোধন হতে যাচ্ছে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে আগামীকাল শনিবার (২৫ জুন) উদ্বোধন হতে যাচ্ছে পদ্মা সেতুর। উদ্বোধন উপলক্ষে শেষ সময়ে এসে সব ধরনের প্রস্তুতি এখন সমাপনী পর্যায়ে। সেতু উদ্বোধনের পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদারীপুরের শিবচর থানার বাংলাবাজার হাটে এক বিশাল জনসভায় বক্তৃতা দেবেন।

প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে কেন্দ্র করে শিবচরে বিরাজ করছে উৎসবমুখর পরিবেশ। নেয়া হয়েছে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা। মাদারীপুর জেলা পুলিশ থেকে শুরু করে সেনাবাহিনী, র‍্যাব, আনসার, ফায়ার সার্ভিসের কয়েকটি টিম একযোগে নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে শিবচরবাসীর মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে এক আনন্দঘন পরিবেশ। একদিকে পদ্মা সেতু হওয়ার আনন্দ, অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমন।

এদিকে স্বপ্ন জয় করে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের আগে আজ জুম্মা নামাজের পরে বাংলাদেশের ড্যাসিং ওপেনার তামিম ইকবাল খান তার নিজস্ব ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। এবং ক্যাপশনে তামিম লিখেছেন.

পদ্মা সেতু, আজ সকল বাংলাদেশির অসীম সাহসের আরেক নাম। হাজার বছর ধরে, আমরা নানা প্রতিকূলতায় মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছি পৃথিবীর বুকে। নিজেদের টাকায় এতো বড় বাজেটের প্রকল্প বাস্তবায়ন করে, আমরা বিশ্বকে আরো একবার অর্থনৈতিক বিজয় ও প্রবল মনোবলের প্রমাণ দিলাম- বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র দৃঢ় নেতৃত্বে।

উল্লেখ্য : আমাজনের পরে বিশ্বের সবচেয়ে খরস্রোতা নদী ধরা হয় পদ্মাকে। সেই পদ্মায় নদীশাসন করা, পিলার বসানো, পাইলিং করা থেকে শুরু করে প্রতিটি পদক্ষেপই ছিল অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং। বারবার কাজে বাধা এসেছে, কিন্তু থমকে যায়নি কাজ। ২৪ ঘণ্টার কম সময়ের মধ্যে উদ্বোধন হবে পদ্মা সেতু। পূরণ হবে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের এত দিনকার প্রাণের দাবি। বাংলাদেশ পাবে নতুন এক অবকাঠামোগত রূপ।

তাই একনজরে পদ্মা সেতু কিছু উল্লেখযোগ্য তথ্য তুলে ধরা হলো:
* পদ্মা বহুমুখী সেতু বাংলাদেশের সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে তৈরি হওয়া সবচেয়ে বড় অবকাঠামো।
* ২০০৭ সালের ২৮ আগস্ট তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্মা সেতু প্রকল্প পাস করে।
* পদ্মা সেতুর অবস্থান রাজধানী ঢাকা থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে।
* পদ্মা সেতু প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে ১ দশমিক ২৩ শতাংশ হারে মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) বৃদ্ধি পাবে।

* পদ্মা সেতু প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জিডিপি বাড়বে- ২ দশমিক ৩ শতাংশ।
* ২০১৪ সালের ৭ ডিসেম্বর পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়।
* পদ্মা সেতু দ্বিতলবিশিষ্ট। দুই স্তরবিশিষ্ট স্টিল ও কংক্রিট নির্মিত ট্রাস ব্রিজটির- ওপরে স্তরে রয়েছে চার লেনের সড়কপথ এবং নিচের স্তরটিতে রয়েছে একটি একক রেলপথ। * পদ্মা সেতু প্রকল্পে নদীশাসনে ৮ হাজার ৭০৭ কোটি ৮১ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে।

* পদ্মা সেতু নির্মাণে চুক্তিবদ্ধ কোম্পানির নাম- চায়না রেলওয়ে গ্রুপ লিমিটেডের আওতাধীন চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানি।
* পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য- ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার।
* পদ্মা সেতুর প্রস্থ- ৭২ ফুট।
* পদ্মা সেতুর সংযোগ সড়ক দুই প্রান্তে (জাজিরা ও মাওয়া)- ১৪ কিলোমিটার।

* পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুই পাড়ে ১২ কিলোমিটার নদীশাসন হয়েছে।
* পদ্মা সেতুর ৮১টি ভায়াডাক্ট পিলার রয়েছে।
* পানির স্তর থেকে পদ্মা সেতুর উচ্চতা ৬০ ফুট।
* পদ্মা সেতুর পাইলিং গভীরতা ৩৮৩ ফুট।

* পদ্মা সেতুর মোট পিলারের সংখ্যা ৪২টি।
* পদ্মা সেতুর মোট স্প্যানের সংখ্যা ৪১টি।
* পদ্মা সেতুর মোট পাইলিংয়ের সংখ্যা ২৮৬টি।
* সব মিলিয়ে পদ্মা সেতুতে খুঁটির সংখ্যা ১৩৩টি।
* পদ্মা সেতুর প্রকল্পের পরিচালক হচ্ছে প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম।

You May Also Like

About the Author: