আর্জেন্টিনাকে গুরুতর অপমান করলো ব্রাজিল!

বিশ্বকাপের সবচেয়ে সফল দল ব্রাজিল। টুর্নামেন্টটির সর্বোচ্চ পাঁচবার শিরোপা ঘরে তুলেছে দলটি। তবে ব্রাজিল সবশেষ শিরোপা উচিঁয়ে ধরে আরও দুই দশক আগে ২০০২ সালে।
সেবার এশিয়ার দেশ কোরিয়া ও জাপানে অনুষ্ঠিত হওয়া আসরে সবশেষ বিশ্বকাপ জিতে সেলেসাওরা। সেই দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন কিংবদন্তি রবার্তো কার্লোস। তিনি জানালেন খরা কাটিয়ে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জয়ের সময় চলে এসেছে।

চলতি বছরে এশিয়ার দেশে কাতারে বসছে বিশ্বকাপ ফুটবলের ২২তম আসর। বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে দুর্দান্ত ছিল ব্রাজিল। ল্যাতিন আমেরিকার দলগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ পয়েন্ট নিয়ে বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করে সেলেসাওরা। হারেনি একটিও ম্যাচ। ছন্দে আছেন দলটির তারকারা। তাই তো এবার ব্রাজিলকে নিয়ে আশায় বুক বাঁধছেন কার্লোস

সম্প্রতি সাংবাদিকদের কার্লোস বলেন, ‘সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টা হচ্ছে, ব্রাজিলের একটা দারুণ দল আছে। ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জেতার সময় চলে এসেছে, কারণ শিরোপার সঙ্গে শেষ ছবিটা আমাদের ২০০২ বিশ্বকাপের।’

তিনি বলেন, ‘আমি বেশ আশাবাদী। বিশ্বকাপটা জেতা অতো সহজ হবে না। আমাদের পর থেকে শেষ কয়েকবার ব্রাজিলের দলগুলো সব বারের মতোই ভালো ছিল, তারা দুর্দান্ত কিছু ম্যাচ খেলেছে বটে, কিন্তু শিরোপা জেতার মতো ভালো খেলেনি।’

গত বছর নিজেদের দশম কোপা জয়ের সুযোগ ছিল ব্রাজিল। কিন্তু ঘরের মাঠে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনার কাছে হারিয়ে শিরোপা খোয়ায় ব্রাজিল। আর্জেন্টিনা কাটায় ২৮ বছরের শিরোপা খরা।

কার্লোস মনে করেন, মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের আসরের চেয়ে বিশ্বকাপের গুরুত্বটা ঢের বেশি। তিনি বলেন, ‘কোপা আমেরিকা গুরুত্বপূর্ণ, কিন্তু ব্রাজিলিয়ানদের জন্য বিশ্বকাপটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ, এর একটা আলাদা স্বাদ আছে।’

সেই শিরোপার জন্য ব্রাজিল অন্যতম ফেভারিট, মনে করেন কার্লোস। বললেন, ‘মোমেন্টামটা ব্রাজিলের পক্ষে আছে। ইউরোপীয় সংবাদ মাধ্যম ইতোমধ্যেই ব্রাজিলকে অন্যতম ফেভারিট বানিয়ে দিয়েছে। এটা গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়।’

স্পেন কোচ লুইস এনরিকে সপ্তাহ খানেক আগে বলেছিলেন, ব্রাজিল বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট। কার্লোস মনে করেন অন্য কোচরাও এমনটাই বিশ্বাস করেন। তিনি বলেন, ‘লুইস এনরিকে কয়েকদিন আগে বলেছিলেন এটা। যদি আপনি অন্য সব জাতীয় দলের কোচদের জিজ্ঞেস করেন, তারাও বলবেন, ব্রাজিল বিশ্বকাপ জেতার জন্য চার ফেভারিট দলের একটি। যদি তারা ভালোভাবে প্রস্তুতি নেয়, তাহলে ব্রাজিল আবারও বিশ্বকাপ জিতবে।’

You May Also Like

About the Author: