মালয়েশিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

এক এক করে দুটি ম্যাচ খেলা হয়ে গেছে বাংলাদেশের। এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের ঠিক শেষ পর্যায়ে দাঁড়িয়ে জামাল ভূঁইয়ারা। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মালয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে মিশন শেষ করবে হ্যাভিয়ের ক্যাবরেরার শিষ্যরা। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় দুই দেশের ম্যাচটি শুরু হবে। বেসরকারি টেলিভিশন টি-স্পোর্টস ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে।

আগের ম্যাচে তুর্কমেনিস্তানের বিপক্ষে লড়াকু ফুটবল খেলে বাংলাদেশ ২-১ গোলে হেরেছে। তার আগে প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ২-০ গোলে হেরেছে বাহরাইনের বিপক্ষে। শেষ ম্যাচটায় কি করবে বাংলাদেশ?

আন্তর্জাতিক ফুটবলে নিকট অতীতে বাংলাদেশ সেরা ম্যাচটি খেলেছে তুর্কমেনিস্তানের বিপক্ষে। ম্যাচটি বাংলাদেশ ড্র করতে পারতো। ভাগ্য বেশি সহায় থাকলে জিতলেও অবাক হওয়ার ছিল না। কিন্তু ফুটবল কখনো কখনো আপনাকে দুহাত ভরে দেবে, কখনো বঞ্চিত করবে। ওই দিন আসলে বাংলাদেশের বঞ্চিত হওয়ার দিনই ছিল। নাহলে এত সুন্দর ফুটবল খেলেও হেরে যাবে কেন?

তিন ম্যাচের দুটি হেরে যাওয়ার পর আক্ষরিক অর্থে বাংলাদেশের আর কোন সুযোগ নেই। গাণিতিক হিসেব যে সম্ভাবনা আছে সেটা পূরণ হওয়া কঠিন। তাই বাংলদেশ দল চাইবে অনন্ত একটি জয় বা একটি পয়েন্ট নিয়ে ফিরতে। সে লক্ষ্যটা পূরণ হবে কি?

আমরা যদি দুই দলের শক্তির পার্থক্য দেখি তাহলে পরিষ্কার ফেবারিট হয়েই মাঠে নামবে স্বাগতিকরা। শক্তির মাপকাঠি যদি ফিফা র‌্যাংকিং হয় তাহলে বাংলাদেশের চেয়ে ৩৪ ধাপ এগিয়ে মালয়েশিয়া। এই পার্থক্যটা বলে দিচ্ছে বাংলাদেশ যদি একটি পয়েন্টও অর্জন করতে পারে সেটা হবে বিশাল কৃতিত্বের।

আগের ম্যাচের প্রতিপক্ষ বাংলাদেশের সামনে অনেকটাই অপরিচিত হলেও মালয়েশিয়া তা নয়। এর আগে ৯ বার মুখোমুখি হয়েছে দুই দেশ। যার মধ্যে ৬ ম্যাচই জিতেছে মালয়েশিয়া। বাংলাদেশের একটি ম্যাচ জয় আছে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে।

১৯৮২ সালে দিল্লি এশিয়ান গেমসে ২-১ গোলের জয় ছিল একমাত্র পুরো পয়েন্ট পাওয়ার। দুই ম্যাচ ড্র করেছে বাংলাদেশ। সর্বশেষ ম্যাচ ছিল ২০১৫ সালের আগস্টে ফিফা ফ্রেন্ডলিতে। ম্যাচটি ড্র হয়েছিল গোলশূন্যভাবে।

You May Also Like

About the Author: