বিশ্বকাপ ফুটবলের শেষ দুই দল হবে কারা?

পেরু-অস্ট্রেলিয়া আর নিউজিল্যান্ড-কোস্টারিকা, বিশ্বকাপ বাছাই প্লে-অফের শেষ দুই ম্যাচে মাঠে নামবে এই চার দল। তাদের মধ্যে যেকোনো দুই দলের বিশ্বকাপ স্বপ্নপূরণ হবে, আর অন্য দুই দল ডুববে তীরে এসে তরী ডোবার বেদনায়। তবে একটা বিষয় হলফ করেই বলা যায়, বাংলাদেশ সময় আজ এবং আগামীকাল মধ্যরাতে এই চার দেশের ফুটবলপ্রেমীরাই আবেগের সমুদ্রে ভাসবে, কেউ উচ্ছ্বাসে কেউবা হতাশায়।

কাতার বিশ্বকাপের ৩২ দলের ৩০টির নাম এরই মধ্যে জানা হয়ে গেছে সবার। আজ এবং আগামীকাল রাতে প্লে-অফের দুই ম্যাচ থেকে বিশ্বকাপের প্লেনে চড়ার টিকিট পাবে শেষ দুই দল। পেরু-অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড-কোস্টারিকার ম্যাচ দুটি অনুষ্ঠিত হবে কাতারের আল রাইয়ানে আহমাদ বিন আলি স্টেডিয়ামে।

জুন-জুলাইয়ের তীব্র গরমকে পাশ কাটাতেই কাতার বিশ্বকাপকে নভেম্বর-ডিসেম্বর উইন্ডোতে স্থানান্তর করেছিল ফিফা। তবে পেরু, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এবং কোস্টারিকাকে এই জুনের গরমের মধ্যেই প্লে-অফ ম্যাচ খেলতে হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে অভিযোগের সুর ভেসে আসছে পেরুর ক্যাম্প থেকে। দলটির সহকারী কোচ কাতারের তীব্র গরমের মধ্যে এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ আয়োজনের জন্য সংশ্লিষ্টদের সমালোচনা করে বলেছেন, ‘আমাদের এমন কন্ডিশনে খেলতে বলা হচ্ছে, যে কন্ডিশনে বিশ্বকাপ খেলা যাবে না বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এত বড় এক ম্যাচ, যার ওপর এত কিছু নির্ভর করছে, আমি নিশ্চিত নই, এটা কারও জন্যই ভালো কোনো খবর নয়।’

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে ২০ ধাপ এগিয়ে আছে পেরু। দুই দলের মধ্যকার একমাত্র ম্যাচটি হয়েছিল গত বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে। সেই ম্যাচে ‘সকারুদের’ হারিয়ে চার দশক পর বিশ্বকাপের মঞ্চে জয়ের মুখ দেখেছিল লাতিন আমেরিকার দেশটি। পেরুর সামনে তাই আজ বড় পরীক্ষার মুখেই পড়তে হতে পারে অস্ট্রেলিয়াকে।

আগামীকাল রাতে শেষ প্লে-অফ ম্যাচে মুখোমুখি হবে কনকাকাফ অঞ্চলের কোস্টারিকা এবং ওশেনিয়া অঞ্চলের নিউজিল্যান্ড। ২০১৪ এবং ২০১৮ বিশ্বকাপ খেলা কোস্টারিকা প্রথমবারের মতো টানা তৃতীয় বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে উন্মুখ। অপরদিকে বিশ্বমঞ্চে এক যুগের অনুপস্থিতির পর আবারও ফিরতে মরিয়া সবশেষ ২০১০ দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপে খেলা নিউজিল্যান্ড।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের হিসাবে দুই দলের আকাশ-পাতাল পার্থক্য। ৩১তম স্থানে থাকা কোস্টারিকার প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড তাদের চেয়ে পাক্কা ৭০ ধাপ পিছিয়ে আছে (১০১)। কাগজে-কলমে তাই পরিষ্কার ফেবারিট হিসেবেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে লুইস ফার্নান্দো সুয়ারেজের কোস্টারিকা। বড় কোনো চমক দেখাতে পারলেই কেবল এক যুগের হতাশা মিটতে পারে নিউজিল্যান্ডের।

You May Also Like

About the Author: