প্রস্তুতি ছাড়াই শ্রীলঙ্কা যাবে মুমিনুলের টেস্ট দল!

শ্রীলঙ্কা সফরের আগে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের এনসিএলের অন্তত এক রাউন্ড খেলানোর চেষ্টা করবে বিসিবি। তবে, নিউজিল্যান্ড সফরের পর যদি সূচি জটিলতা দেখা দেয়, সেক্ষেত্রে লঙ্কা দ্বীপে গিয়ে প্রস্তুতি নেয়া হবে বলে জানালেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। এদিকে, জাতীয় লিগের চার দিনের ম্যাচগুলোতে কেউ ভালো ফলাফল করলে, শ্রীলঙ্কা সফরের দলে জায়গা পেতে পারেন বলেও আভাস দিলেন প্রধান নির্বাচক।

বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘এক বছর পর ডমিস্টিক কম্পিটিটিভ ক্রিকেট মাঠে ফিরছে। সবাই খেললে আশা করি আমরা নিজেদের তৈরি করতে পারবো।’

এক বছর বিরতির পর ক্রিকেটে ফিরে উইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টে যা হলো, তা খুব বেশি হতবাক করেছে ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের, তা কিন্তু নয়। ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট খেলেই ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে লাল বলে খেলতে নামাটা তখন কতটা বোকামি ছিলো, তা এখন হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে বিসিবি।

শ্রীলঙ্কা সফরের আগে তাই সে পথে আর হাঁটতে চায় না তারা। ক্রিকেটারদের জাতীয় লিগের অন্তত এক রাউন্ড খেলানোর পরিকল্পনা বোর্ডের। তবে, সূচি জটিলতা দেখা দিলে আছে ব্যাকআপ প্ল্যানও। যদিও, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা যাবে বিস্তর।
মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘টেস্ট ক্রিকেটার যারা দেশে আছেন তারা দুটি রাউন্ড খেলতে পারবেন।

আর নিউজিল্যান্ড থেকে ফেরার পর অন্যরা যাতে একটা রাউন্ড খেলতে পারে সেই চেষ্টা করবো। সাদা বল আর লাল ব অলের খেলা একদম আলাদা। তাই প্রস্তুতি ছাড়া টেস্ট খেলা যাবেনা। এখানে সুযোগ না পেলে শ্রীলঙ্কা গিয়ে একটা তিনদিনের প্রস্তুতি খেলতে হবে।’

আপাতত শ্রীলঙ্কা সফরের আগেই এনসিএলের তিন রাউন্ড শেষ করে ফেলতে চায় ক্রিকেট বোর্ড। সেভাবেই এগোচ্ছে সব পরিকল্পনা। আর এই রাউন্ডগুলোতে যদি পারফরম্যান্স দিয়ে নজর কাড়তে পারেন কেউ, তাহলে লঙ্কা দ্বীপে উড়াল দেয়ার সুযোগ না কি রাখা আছে তাদের জন্যও।

প্রধান নির্বাচক নান্নু বলনে, ‘টেস্টে আমরা অভিজ্ঞদের মূল্যায়ণ করবো। তবে, এখানে কেউ আউটস্ট্যান্ডিং কিছু করলে অবশ্যই বিবেচনা করা হবে।’
নিউজিল্যান্ড থেকে তেসরা এপ্রিল দেশে ফিরে, ১২ই এপ্রিল শ্রীলঙ্কা যাওয়ার কথা রয়েছে মুমিনুল বাহিনীর।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment