অদ্ভুতুড়ে টাইয়ের সাক্ষী হয়ে শ্রীলঙ্কার ঘরোয়া ক্রিকেটে বিশ্বরেকর্ড

শ্রীলঙ্কায় এমন একটি টাই ম্যাচের দেখা মিলল যা অনেক দিন মনে থাকবে ক্রিকেট সমর্থকদের। মাত্র ৬০ রানের এই ম্যাচে ফলাফল টাই হওয়ার পাশাপাশি দুই ইনিংসের ওভার আর উইকেটের সংখ্যাও ছিল অভিন্ন।

সীমিত ওভারের ফরম্যাট বলে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তিনটি ফলাফল সম্ভব- জয়, পরাজয় আর টাই। সাধারণত জয় পরাজয়ের মত টাই ম্যাচের দেখা মেলে না। যেসব ম্যাচ টাই হয়, তা জায়গা করে নেয় স্মৃতি কিংবা ইতিহাসের পাতায়। তবে শ্রীলঙ্কায় এমন একটি টাই ম্যাচের দেখা মিলল যা অনেক দিন মনে থাকবে ক্রিকেট সমর্থকদের। মাত্র ৬০ রানের এই ম্যাচে ফলাফল টাই হওয়ার পাশাপাশি দুই ইনিংসের ওভার আর উইকেটের সংখ্যাও ছিল অভিন্ন।

অবিশ্বাস্য এই দৃশ্য দেখা গেছে শ্রীলঙ্কার ঘরোয়া ক্রিকেটে। মেজর ক্লাবস টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে কলম্বোর নন্দেস্ক্রিপ্ট ক্রিকেট ক্লাব মাঠে মুখোমুখি হয়েছিল কালুতারা টাউন ক্লাব বা কেটিসি ও গল ক্রিকেট ক্লাবের বা জিসিসি। বৃষ্টির বাগড়ায় পড়লে ফলাফল বের করে আনার জন্য ম্যাচের দৈর্ঘ্য নামিয়ে আনা হয় ১২ ওভারে, অর্থাৎ প্রতি ইনিংসে হবে ৬ ওভার করে।

তবে তা সত্ত্বেও জয় পরাজয় বের করে আনতে পারেননি ম্যাচ অফিসিয়ালরা। কারণ ম্যাচটি যে টাই হয়েছে! আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৬ ওভারে ৩০ রান জড়ো করে গল ক্রিকেট ক্লাব, বিনিময়ে হারিয়ে ফেলে ৯টি উইকেটই। ম্যাচ জিততে হলে কালুতারা টাউন ক্লাবের প্রয়োজন ছিল ৩১ রান। কিন্তু হায়! কালুতারা ক্রিকেটও ক্লাবও নির্ধারিত ৬ ওভারে ঠিক ৩০ রানই করে। শুধু তা-ই নয়, কালুতারা দলটিও ঠিক ৯টি উইকেটই হারায় এই স্বল্প দৈর্ঘের ম্যাচে।

স্বভাবতই এমন টাই হওয়া ম্যাচ আলোচনার জন্ম দিয়েছে। স্বীকৃত ক্রিকেটে এত কম রানের ম্যাচে টাই দেখা যায়নি আগে। অন্তত ১০ ওভার খেলা হয়েছে পুরো ম্যাচে, আইসিসি স্বীকৃত এমন খেলাগুলোর মধ্যে এটাই সবচেয়ে কম রানের রেকর্ড। এর আগে ৬০ রান হয়েছে এমন কোনো ম্যাচে ফলাফল হিসেবে টাই দেখেনি ক্রিকেট দুনিয়া। ম্যাচে মোট যে ১২ ওভার মাঠে গড়িয়েছে তার মধ্যে মাত্র ২টি ওভারে কোনো উইকেটের পতন ঘটেনি। উইকেট প্রতি রান উঠেছে মাত্র ৩.৩৩ হারে। স্বীকৃত ক্রিকেটের কোনো ম্যাচে সর্বনিম্ন গড় এর রেকর্ডও এটি।

কালুতারার বাঁহাতি স্পিনার ইনশাকা সিরিবর্ধনে ২ ওভার বল করে ৫ রানের খরচায় ৫ উইকেট শিকার করেন। এর মধ্যে ৪ উইকেট শিকার করেছেন একটি ওভারেই। পুরো ম্যাচে ২ অঙ্কের রানের দেখা পেয়েছেন মাত্র একজন। সেই ভাগ্যবান ব্যাটার কাওসিথা কোদিথু ওয়াক্কুর ব্যাট থেকে আসে ১২ রান। এছাড়া দুই দলের বাকি ২১ জনই দুই অঙ্কের রানের দেখা পেতে ব্যর্থ হন।

এদিকে ফলাফল এসেছে এমন ম্যাচগুলোর মধ্যে ৬০ রানের চেয়ে কম রান এসেছে মাত্র ৪টি ম্যাচে। এই তালিকায় সবার নিচে আছে উগান্ডা ও লেসোথর মধ্যকার ম্যাচ, যে ম্যাচে মোট ৫৩ রান হয়েছিল। বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

You May Also Like

About the Author: