কাতার বিশ্বকাপ জিতবে আর্জেন্টিনা

কোপা আমেরিকাজয়ী ও ইউরোজয়ীর লড়াই লা ফিনালিসিমায় ইতালিকে হারিয়ে বিশ্বসেরার খেতাব জিতে নিয়েছে আর্জেন্টিনা। ২৯ বছর পর দুই মহাদেশের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের লড়াইয়ে মানচিনির শিষ্যদের ৩-০তে হারায় আলবিসেলেস্তেরা। দলের এমন দাপুটে পারফরম্যান্সের পর কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখাও শুরু করে দিয়েছেন সমর্থকরা।

এদিকে, আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জয়ের দাবিদার বলে মন্তব্য করেছেন ইতালির কোচ রবার্তো মানচিনি। তিনি বলেন, তারা আমাদের চেয়ে ভালো খেলেছে। জয়টা তাদেরই প্রাপ্য ছিল। সঙ্গে আরও যোগ করেন, আমি মনে করি কাতার বিশ্বকাপ ওরাই জিতবে।

কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার পক্ষে মানচিনির সাফাইয়ের পরও নিজেদের ফেবারিট মানছেন না লিওনেল মেসি। শিরোপা জয়ের পর নিজেদের পা মাটিতেই রাখছেন আর্জেন্টাইন তারকা। জানিয়েছেন, কাতার বিশ্বকাপে ফেবারিট নয় আর্জেন্টিনা। বরং কাতারে প্রতিপক্ষ দলগুলোর জন্য হুমকি হয়ে উঠতে পারেন তারা। বিশ্বকাপের আগে নিজেদের আরও উন্নতির প্রয়োজন আছে বলেও মত তার।

ফিনালিসিমার লড়াই শেষে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক বলেন, কাতার বিশ্বকাপে আরও অনেক ভালো দল খেলবে। আমরা বলতে পারি না যে আমরা সেখানে ফেবারিট। তবে, এটা সত্যি যে আমরা যে কারো ঘুম হারাম করে দিতে পারি। আমরা চেষ্টা করবো।

এদিকে, ফিনালিসিমার শিরোপা জিতে ফরাসি তারকা এমবাপ্পেকে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিলেন লিওনেল মেসি।

ওয়েম্বলিতে একটা জয়। একটা শিরোপা শত সমালোচনার দাঁতভাঙ্গা জবাব। কোপা আমেরিকার পর মহাদেশীয় ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের আসর ফিনালিসিমার শিরোপা আর্জেটিনার। শিরোপা জয়ের পর উদযাপনের মধ্যমনি দলের নিউক্লিয়াস লিওনেল মেসি। এ যেন ইটের জবাবে পাটকেল নিক্ষেপ। ইতালির ঘুরে দাঁড়ানোরর স্বপ্ন ভেঙে ফিনালিসিমা জিতে এমবাপ্পেকে কড়া জবাব দিলেন আর্জেন্টাইন তারকা।

পেলে, ম্যারাডোনা যুগের ফুটবলের চেয়ে বর্তমানের ল্যাটিন ফুটবল নাকি ই্‌উরোপের গতিময় ফুটবলকে টেক্কা দিতে পারছে না। কদিন আগে মেসিরই সতীর্থ ফরাসি তারকা এমবাপ্পের এমন ঔদ্ধত্বপূর্ণ মন্তব্যের জবাব যেন মেসির ফিনালিসিমা।

মেসি বলেন, ইউরোপের চেয়ে দক্ষিণ আমেরিকার কন্ডিশনে খেলা অনেক চ্যালেঞ্জিং। হতে পারে বিশ্বকাপে সাম্প্রতিক সময়ে আগের মতো সাফল্য পাচ্ছে না দক্ষিণ আমেরিকার দলগুলো। তাই বলে গতিময় ফুটবল আমরা খেলতে পারি না এটাও ঠিক নয়। বাছাইপর্বে আর্জেন্টিনাকে অনেক কঠিন পরীক্ষার সামনে পড়তে হয়েছে। সেটা অনেকেই ভুলে গেছে। আমরা উন্নতি করছি। সেটা বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে।

ফিনালিসিমার শিরোপা জিতে মেসি জাতীয় দল ও ক্লাব ফুটবল মিলিয়ে জিতলেন ৪০ টি শিরোপা। আর মাত্র ৬টি শিরোপা জিতলেই ছুয়ে ফেলবেন বন্ধু দানি আলবেসের বিশ্বরেকর্ড।

You May Also Like

About the Author: