ইংল্যান্ডের হয়ে এদিন মাঠে নামেন বাংলাদেশের সুনামগঞ্জের এই তরুণ ক্রিকেটার

বৃহস্পতিবার লর্ডসে শুরু হয়েছে নিউজিল্যান্ড বনাম ইংল্যান্ডের প্রথম টেস্ট। ৩৮তম ওভারে ফিল্ডিং করতে নামলেন এক তরুণ। কিন্তু তাঁর জার্সিতে না আছে কোনও নাম, না আছে নম্বর। খোঁজ নিয়ে জানা গেল, তাঁর নাম ‘রবিন জেমস দাস’। যেকিনা একজন বাংলাদেশি।

রবিন অতিরিক্ত ফিল্ডার হিসাবে মাঠে নেমেছিলেন বৃহস্পতিবার। যদিও মাত্র চারটি ডেলিভারির সময় মাঠে ছিলেন তিনি। রবিন যখন মাঠে নামেন, তখন লর্ডস টেস্টে প্রথম একদশে সুযোগ না-পাওয়া হ্যারি ব্রুক এবং ক্রেগ ওভারটন অতিরিক্ত ফিল্ডার হিসাবে মাঠে ছিলেন। বাইরে গিয়েছিলেন স্টুয়ার্ট ব্রড। তার পরেও ম্যাটি পট্স চোট পাওয়ায় তৃতীয় একজন ক্রিকেটার দরকার ছিল। তাঁর জায়গাতেই ফিল্ডিং করেন রবিন। পটসের অসমাপ্ত ওভার শেষ করেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক বেন স্টোকস। সেই ওভার শেষ হতেই মূল দলের ব্রড মাঠে ফেরেন এবং রবিন উঠে যান। ঘটনাচক্রে, ইংল্যান্ডের ১৩ জনের যে দল ঘোষণা করা হয়েছিল নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য, সেই দলে রবিনের নাম নেই! কিন্তু আপৎকালীন পরিস্থিতিতে তাঁকে মাঠে নামতে বলে টিম ম্যানেজমেন্ট।

রবিনের জন্ম ইংল্যান্ডের লেটনস্টোনে। কিন্তু তাঁর শিকড় বাংলাদেশে। বাবার জন্ম সুনামগঞ্জে। রবিন ব্রেন্টউড স্কুলে পড়াশোনা করেছেন। রবিনের বয়স ২০ বছর। ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে খেলেন সাসেক্সের হয়ে। এখনও পর্যন্ত মাত্র একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন রবিন। ২০২০ সালের সেই ম্যাচে তিনি করেছিলেন ৭ রান।

তবে ২০১৮ সালে এসেক্সের অনূর্ধ্ব-১৬ দলের হয়ে দ্বিশতরান করেছিলেন এই বাঙালি। এসেক্স দ্বিতীয় একাদশের হয়েও খেলেছেন তিনি।

এদিকে তার লর্ডসে ফিল্ডিং করতে নামার পর এসেক্স কাউন্টি টুইটারে রবিনকে শুভেচ্ছাও জানিয়েছে। কাউন্টির তরফে ইংল্যান্ডের হয়ে ‘টুয়েলফ্‌থ ম্যান ডিউটি’ করার জন্য রবিন এবং তাঁর সতীর্থ নিখিল গোরান্টলাকে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। যা থেকে স্পষ্ট যে, ইংল্যান্ডের হয়ে এই বাঙালির মাঠে নামাকে গুরুত্ব দিয়েই দেখছে তাঁর কাউন্টি।

উল্লেখ্য, এসেক্সের দ্বিতীয় একাদশের হয়ে খেলেন রবিনের দাদা জোনাথন জয় দাস। তিনি উইকেটরক্ষক। এসেক্সের ক্রিকেট বোর্ডের ডিরেক্টর জাওয়ার আলি বলেছেন, “ভাল লাগছে ব্রিটিশ-বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ পর্যায়ে খেলতে দেখে। আশা করব ভবিষ্যতে রবিন ইংল্যান্ডের হয়েও খেলবে।”

You May Also Like

About the Author: