স্বামী হার্দিককে আইপিএল জিততে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়লেন রাশিয়ান স্ত্রী নাতাশা

অন্ধকারে কাটানো দিনগুলোর খবর তিনি ছাড়া আর কেউ জানেন না। সেই হার্দিককে পান্ডিয়াকে আইপিএল জেতাতে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়লেন তাঁর রাশিয়ান স্ত্রী।

আত্মপ্রকাশেই ইতিহাসে গুজরাত টাইটান্স (Gujarat Titans) আইপিএলে (IPL 2022) পা দিয়েই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে হার্দিক পান্ডিয়ার (Hardik Pandya) টিম। রাজস্থান রয়্যালসকে ফাইনালে হারিয়ে খেতাব জয়ের মধ্যে দিয়ে প্রত্যাবর্তন হল অলরাউন্ডার হার্দিকের। গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর তীব্র বিতর্কে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। চোট নিয়ে প্রশ্ন উঠে যায়। বোলার হার্দিক হারিয়ে গিয়েছিলেন বেশ কিছু দিন ধরে। সেই তিনিই ব্য়াটে-বলে দারুণ ভাবে ঘুরে দাঁড়ালেন। ৩ উইকেট ও ৩৪ রানের সুবাদেই রাজস্থানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন গুজরাত। আইপিএল শুরু হয়েছিল ২০০৮ সালে। সে বার প্রথম চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল রাজস্থানই। তাদেরই ফাইনালে হারিয়ে খেতাব জয় তৃপ্তিতে ভাসিয়ে দিয়েছে হার্দিককে। গুজরাতের ক্যাপ্টেনকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন যিনি, তিনি খুব ভালো করে জানেন, কতটা যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে। তাই গুজরাতকে চ্যাম্পিয়ন হতে দেখে হার্দিকের স্ত্রী নাতাশা স্তাঙ্কোভিচ (Natasa Stankovic) কান্নায় ভেঙে পড়েন।

ম্যাচের পরই মাঠে নেমে পড়েন মডেল ও অভিনেত্রী নাতাশা। রাশিয়ান স্ত্রীকে জড়িয়ে ধরেন হার্দিক। তখনই কান্নায়. ভেঙে পড়তে দেখা গিয়েছে নাতাশাকে। হার্দিক তখন তাঁকে সান্ত্বনা দিচ্ছিলেন। আলো থেকে হঠাৎ অন্ধকারে চলে যাওয়া হার্দিক কতটা কঠিন সময় কাটিয়েছেন, নাতাশা ছাড়া আর কেউ জানেন না। ভারতীয় টিম থেকে বাদ পড়া, মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের তাঁকে ছেড়ে দেওয়া, চোট নিয়ে বিতর্ক— হার্দিককে ক্রমশ অন্ধকারে ঠেলে দিয়েছিল। যা একেবারেই মেনে নিতে পারছিলেন না তিনি। সেই কারণেই প্রচারমাধ্যমের থেকে দূরে নীরবে নিজেকে তৈরি করেছেন। ফিটনেস নিয়ে খেটেছেন। গুজরাত টাইটান্স তাঁকে নেতৃত্ব দেওয়ার পর থেকেই আবার ফিরে আসার লড়াই শুরু করেছিলেন। সাদা বলেই যে তাঁর ফোকাস, তা পরিষ্কার করে দিয়েছিলেন। ভারতের টি-টোয়েন্টি টিমে আবার ফিরে আসার জন্য মরিয়া ছিলেন। সেই কারমেই বেছে নিয়েছিলেন আইপিএল। সেই টুর্নামেন্টে তিনি শুধু ফিরে এলেন তাই নয়, রোহিত শর্মার পরবর্তী নেতা হিসেবে লোকেশ রাহুল, ঋষভ পন্থদের পাশাপাশি নিজের দাবিও পেশ করে দিলেন গুজরাতকে চ্যাম্পিয়ন করে।

বোলার হার্দিক, ব্যাটার হার্দিক আর ক্যাপ্টেন হার্দিকের কাছে হারল রাজস্থান রয়্যালস। জস বাটলারকে আউট করা, ক্যাপ্টেন হিসেবে রশিদ খান, সাই কিশোরদের ব্যবহার করা, ব্যাট হাতে চাপের গতিমুখ উল্টো শিবিরের দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া— হার্দিকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বিশেষজ্ঞমহল। শুধু তাই নয়, মোট পাঁচবার আইপিএল জেতা হয়ে গেল তাঁর। যে কৃতিত্ব একমাত্র রয়েছে রোহিত শর্মার। হার্দিকের এমন জোরালো প্রত্যাবর্তনই চোখে জল এনে দিয়েছিল তাঁর স্ত্রী নাতাশার।

You May Also Like

About the Author: